অজ্ঞান পার্টির কবলে মণিরামপুরের গরু ব্যবসায়ী

আপডেট: 07:42:18 08/02/2018



img

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি : মতিয়ার রহমান (৪৫) নামে মণিরামপুরের এক গরু ব্যবসায়ী অজ্ঞান পার্টির কবলে পড়ে লক্ষাধিক টাকা খুইয়েছেন।
বৃহস্পতিবার সকালে অজ্ঞান অবস্থায় তাকে মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। সন্ধ্যায় এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পুরোপুরি জ্ঞান ফেরেনি তার।
মতিয়ার রহমান পৌর এলাকার দুর্গাপুরের জনৈক হজরত আলীর ছেলে।
মতিয়ারের স্ত্রী ফাতেমা বেগম জানান, বুধবার বেলা ১১টার দিকে নসিমনে করে তিনটি গরু কেশবপুর হাটে পাঠান মতিয়ার। পরে দুপুরের দিকে কেশবপুর হাটের উদ্দেশে বাড়ি থেকে বের হন তার স্বামী। ওই দিন সন্ধ্যার পর নসিমন চালক গরু তিনটি বাড়ি ফিরিয়ে এনে জানান, মতিয়ার হাটে যাননি। এরপর খোঁজাখুঁজি শুরু হয়। এক পর্যায়ে তারা জানতে পারেন, চুকনগর ফাঁড়ি পুলিশের হেফাজতে অচেতন অবস্থায় রয়েছেন তার স্বামী। পরে স্বজনরা গিয়ে রাত ১১টার দিকে মতিয়ারকে উদ্ধার করে বাড়ি আনেন। সকাল পর্যন্ত জ্ঞান না ফেরায় বৃহস্পতিবার সকাল দশটার দিকে মতিয়ারকে মণিরামপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
হাটে যাওয়ার সময় মতিয়ারের কাছে কত টাকা ছিল তা জানাতে পারেননি তার স্ত্রী ফাতেমা। তবে তিনি জানান, গরু ব্যবসায়ী হওয়ায় তার স্বামীর কাছে সবসময় ৫০-৬০ হাজার টাকা থাকতো। উদ্ধার হওয়ার সময় তার কাছে কোনো টাকা-পয়সা পাওয়া যায়নি।
স্থানীয় কাউন্সিলর আব্দুর রহমান জানান, বুধবার বিকেল তিনটার দিকে চুকনগর ফাঁড়ি পুলিশকে ডেকে বাসের লোকজন তাদের হেফাজতে অচেতন অবস্থায় নামিয়ে দেন মতিয়ারকে। সেখান থেকে পুলিশের মাধ্যমে খবর পেয়ে রাতে মতিয়ারকে উদ্ধার করা হয়।
মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পুরুষ ওয়ার্ডের সেবিকা সুমিত্রা মণ্ডল বলেন, ‘বিষাক্ত কিছু খাইয়ে মতিয়ারকে অজ্ঞান করা হয়েছে। সকালে অচেতন অবস্থায় তাকে হাসপাতালে আনা হয়েছে। এখনো তার অবস্থা স্বাভাবিক হয়নি।’

আরও পড়ুন