'রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের পরিবেশ ছাড়পত্র দেওয়া হয়নি'

আপডেট: 03:06:37 09/06/2016



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : রামপালে কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের জন্য পরিবেশ অধিদপ্তর থেকে এখনো পরিবেশ ছাড়পত্র দেওয়া হয়নি বলে জানিয়েছেন পরিবেশ ও বনমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন।
বৃহস্পতিবার সংসদে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য এ কে এম মাইদুল ইসলামের প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানিয়েছেন পরিবেশ ও বনমন্ত্রী।
তিনি জানান, রামপালে এক হাজার ৩২০ মেগাওয়াটের কয়লাভিত্তিক তাপবিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে যথোপযুক্ত শর্তারোপ করে এ প্রকল্পের অনুকূলে পরিবেশগত প্রভাব সমীক্ষা প্রতিবেদন অনুমোদন করা হয়েছে। প্রতিবেদনে প্রস্তাবিত মিটিগেশন মেজার্স যথাযথভাবে বাস্তবায়িত হলে সুন্দরবনের ক্ষতি হওয়ার কোনো আশঙ্কা নেই।
প্রশ্নোত্তরের আগে ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়ার সভাপতিত্বে সকাল সাড়ে দশটায় সংসদের অধিবেশন শুরু হয়। প্রশ্নোত্তর টেবিলে উত্থাপিত হয়।
স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য রুস্তম আলী ফরাজীর প্রশ্নের জবাবে আনোয়ার হোসেন জানান, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে সুন্দরবনে চার দফা অগ্নিকাণ্ডে পরিবেশসহ লতাগুল্মের ক্ষতি হয়েছে। এতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ দুই লাখ ৫০ হাজার টাকা। ভবিষ্যতে এ ধরনের ক্ষতি যাতে না হয়, এ জন্য কর্মপরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।
মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করলে শাস্তি
সংরক্ষিত নারী আসনে সরকারি দলের সংসদ সদস্য পিনু খানের প্রশ্নের জবাবে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক জানান, কোনো ব্যক্তি স্বাধীনতাযুদ্ধের ইতিহাস সম্পর্কে বিকৃত ও বিভ্রান্তিমূলক তথ্য প্রকাশ করলে তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। একাত্তরের অত্যাচারী, খুনি ও গণহত্যাকারীদের পক্ষে কথা বললেও একই ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ লক্ষ্যে আইন প্রণয়নের বিষয়টি সরকারের সক্রিয় বিবেচনায় রয়েছে।
শান্তিরক্ষী বাহিনীতে বাংলাদেশের ৭১২৯ সদস্য
জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীতে বর্তমানে পুলিশ ও বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনীর সাত হাজার ১২৯ জন সদস্য কর্মরত আছেন বলে জানিয়েছেন সংসদ কাজে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী আনিসুল হক।
সরকারি দলের সংসদ সদস্য মমতাজ বেগমের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, জাতিসংঘ মিশনে সেনাবাহিনীর চার হাজার ৯২৬ জন, নৌবাহিনীর ৫২৪ জন, বিমানবাহিনীর ৬৩৯ জন এবং পুলিশ বাহিনীর এক হাজার ৪০ জন কর্মরত।
সূত্র : প্রথম আলো

আরও পড়ুন