অশীতিপর বৃদ্ধাকে বেঁধে নির্যাতন, সস্ত্রীক ছেলে আটক

আপডেট: 10:09:24 06/07/2018



img
img

আব্দুস সামাদ, সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরার শ্যামনগরে বৃদ্ধাকে বেঁধে নির্যাতন চালানোর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। পরে পুলিশ ওই বৃদ্ধার ছেলে ও তার বউকে আটক করেছে। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার বড়কুপট গ্রাম থেকে পুলিশ তাদের আটক করে। ।
আটক দুইজন হলেন, বড়কুপট গ্রামের মৃত তৈলক্ষ্য মণ্ডলের ছেলে প্রভাষ মণ্ডল ও তার স্ত্রী আশারানি মণ্ডল।
স্থানীয়রা জানান, বড়কুপট গ্রামের মৃত তৈলক্ষ্য মণ্ডলের অশীতিপর বৃদ্ধা স্ত্রী ফুলমতি দাসীর নড়াচড়ার ক্ষমতা লোপ পেয়েছে। সেই কারণে তিনি বিছানায় প্রাকৃতিক কর্ম সারেন। এজন্য প্রায়ই তাকে বেঁধে নির্যাতন করেন পুত্রবধূ আশা। বৃদ্ধাকে ঠিকমতো খাবারও দেওয়া হয় না। সম্প্রতি স্থানীয় এক যুবক নির্যাতনের বিষয়টি দেখতে পেয়ে পুলিশের দৃষ্টি আকর্ষণ করে ফেসবুকে ছবিটি পোস্ট করেন। তিনি স্ট্যাটাসে লিখেছিলেন ‘মা জনম দুখিনী মা, গর্ভধারিণী মা, যে মা দশ মাস দশ দিন গর্ভধারণ করে সযত্নে রেখেছিলেন। সেই মা যদি এমন বউয়ের পাল্লায় পড়েন! কিন্তু সন্তানের চোখ কি অন্ধ?’
এই ছবিসম্বলিত স্ট্যাটাস ভাইরাল হয়ে যায়। অনেকেই নানা মন্তব্য করেন।
বিষয়টি এক পর্যায়ে পুলিশের দৃষ্টিগোচর হয়। আজ দুপুরে পুলিশ গিয়ে ওই বৃদ্ধাকে বাঁধনমুক্ত করে। তার ছেলে ও পুত্রবধূকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।
শ্যামনগর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শংকর জানান, ওই বৃদ্ধার ছেলে ও তার স্ত্রীকে ইতিমধ্যে আটক করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।
তিনি আরো জানান, বৃদ্ধা ফুলমতি দাসী বর্তমানে নিজ বাড়িতে আছেন। তার খাবারের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন