অরুণিমা ইকো পার্কে গুলি : পাল্টাপাল্টি মামলা

আপডেট: 07:22:16 21/01/2018



img

নড়াইল প্রতিনিধি : নড়াইলের কালিয়া উপজেলার নড়াগাতি থানার পানিপাড়া অরুণিমা ইকো পার্ক-সংলগ্ন জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে গুলিবর্ষণের ঘটনায় পার্কের মালিক ও খাশিয়াল ইউপির সাবেক চেয়ারম্যানকে আসামি করে পৃথক দুটি মামলা হয়েছে।
শনিবার রাতে সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বিশ্বাস ও পার্কের সহকারী ম্যানেজার মিজানুর রহমান ঠাকুর বাদী হয়ে মামলা দুটি রুজু করেন। উভয় মামলায় মোট ৩৮ জনকে আসামি করা হয়েছে।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, অরুণিমা ইকো পার্কের মালিক মোল্যা খবির উদ্দিনসহ ১৮ জনকে আসামি করে প্রথম মামলাটি রুজু করেন মিজানুর রহমান বিশ্বাস। মামলার এজাহারে বলা হয়, খবির উদ্দিন মোল্যার সঙ্গে ওই পার্ক-সংলগ্ন এক খণ্ড জমি নিয়ে বিরোধ ও মামলা মোকদ্দমা চলে আসছিল। এরই মধ্যে মিজানুর বিশ্বাস ওই পার্কের পাশে তার নিজস্ব জমিতে শুক্রবার সকাল থেকে রাত পর্যন্ত সেচপাম্প স্থাপনকালে রাত সাড়ে নয়টার দিকে পার্কের মালিক খবির উদ্দিনের হুকুমে তার লোকজন রাতের অন্ধকারে অতর্কিতে সেচপাম্প স্থাপনের কাজে নিয়োজিত শ্রমিক ও লোকজনের ওপর হামলা চালিয়ে গুলিবর্ষণ শুরু করে আহত করে।
অপরদিকে, খাশিয়াল ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বিশ্বাসসহ ২০ জনকে আসামি করে পার্কের সহকারী ম্যানেজার মিজানুর রহমান ঠাকুর অপর মামলাটি রুজু করেছেন। ওই মামলার এজাহারে বলা হয়েছে,পার্কের মালিকের সঙ্গে খাশিয়াল গ্রামের মিজানুর বিশ্বাসের জমির বিরোধ চলে আসছে। সেচপাম্প স্থাপনের অজুহাতে ওইদিন রাতের অন্ধকারে সশস্ত্র অবস্থায় লোকজন নিয়ে মিজানুর বিশ্বাস বিরোধপূর্ণ জমির কলাগাছ কেটে ফেলাসহ পার্কের সাইনবোর্ড, পোস্টার ছিড়ে ও মালামাল ভাংচুর করে জমিতে দখল নেওয়ার চেষ্টা করলে পার্কের নিরাপত্তা রক্ষীরা জানমাল ও পার্কের নিরাপত্তা রক্ষার জন্য লাইসেন্সকৃত বন্দুক দিয়ে গুলিবর্ষণ করে।
নড়াগাতি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. বেলায়েত হোসেন এই তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ‘আসামিদের আটকের জোর প্রচেষ্টা চলছে।’

আরও পড়ুন