অবিরাম বর্ষণে খুলনায় সীমাহীন দুর্ভোগ

আপডেট: 05:15:55 20/07/2017



img

খুলনা অফিস : বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট মৌসুমি নিম্নচাপের প্রভাবে শ্রাবণের ভারি বর্ষণে সীমাহীন দুর্ভোগে পড়েছেন খুলনাবাসী।
বুধবার রাত থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টি বৃহস্পতিবার (২০ জুলাই) দুপুর ১২টা পর্যন্ত ক্রমাগত চলছিল। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে মানুষ পারতপক্ষে ঘরের বাইরে বের হননি। বহু মানুষ ঘরবন্দি হয়ে পড়েন। সূর্যের মুখ দেখা যায়নি সারাদিনে। নগরীর বড়বাজার ও অনেক অভিজাত মার্কেটের দোকানপাটের বেশিরভাগ বন্ধ রয়েছে।
পথচারী নাসির উদ্দিন বলেন, ‘বৃষ্টির কারণে ঘর থেকে বের হওয়ায় দায়। স্ত্রী অসুস্থ। যে কারণে অবিরাম বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে বাইরে বের হতে হয়েছে।’
রাস্তায় পানি জমে থাকায় যানবাহন পেতে দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে বলে তিনি জানান।
খুলনা মহানগরীর রয়্যালের মোড়, বাইতিপাড়া, তালতলা, শান্তিধাম মোড়, মডার্ন ফার্নিচার মোড়, পিকচার প্যালেসের মোড়, পিটিআই মোড়, সাতরাস্তার মোড়, শামসুর রহমান রোড, নিরালা, বাগমারা, মিস্ত্রিপাড়া, ময়লাপোতা, শিববাড়ী মোড়, বড়বাজার, মির্জাপুর রোড, খানজাহান আলী রোড, খালিশপুর, দৌলতপুর, নতুনবাজার, পশ্চিম রূপসা, আহসান আহমেদ রোড, দোলখোলা, রূপসা স্ট্যান্ড রোড, সাউথ সেন্ট্রাল রোড, বাবুখান রোড, লবণচরা বান্দা বাজার, পশ্চিম রূপসা, খালিশপুর, দৌলতপুর, খানাজাহান আলী, আড়ংঘাটাসহ বিভিন্ন এলাকা বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে। অনেকের ঘরবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বৃষ্টির পানি ঢোকায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
এদিকে পানির কারণে ছোট ছোট যানবাহনের চালকরা যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছেন।
বৃষ্টি ও জলাবদ্ধতার কারণে নগরীর অধিকাংশ স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি কম। যারা অফিস-আদালতে গিয়েছেন তাদের পড়তে হয়েছে ভোগান্তিতে।
সরেজমিনে ঘুরে এসব এলাকায় দেখা গেছে, পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় সড়ক যোগাযোগ অনেক স্থানে প্রায় বন্ধ হওয়ার উপক্রম। নিন্মাঞ্চলের বস্তি ঘরগুলোতে হাঁটু পানি।
খুলনা আঞ্চলিক আবহাওয়া অফিসের সিনিয়র আবহাওয়াবিদ আমিরুল আজাদ বলেন, ‘বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট মৌসুমি নিম্নচাপের ফলে এই বৃষ্টিপাত হচ্ছে। দেশের সমুদ্রবন্দরসমূহে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত বহাল রয়েছে। বৃষ্টিপাত বৃহস্পতিবার দিনভর চলবে। শুক্রবার থেকে বৃষ্টি ক্রমান্বয়ে কমে আবহাওয়া স্বাভাবিক হবে।’

আরও পড়ুন