আমি কি চোর?- প্রশ্ন মাশরাফির

আপডেট: 04:25:10 29/02/2020



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : অবসর নিয়ে ছুটে আসছিল একের পর এক প্রশ্ন। পারফরম্যান্স নিয়েও ছুটে আসছিল তীর। মাশরাফি বিন মুর্তজা নিজের মতো করেই উত্তর দিচ্ছিলেন সবকটির। কিন্তু আত্মসম্মানবোধের প্রসঙ্গ উঠতেই বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক জানালেন ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া। সমালোচনা মেনে নিতে তার সমস্যা নেই। কিন্তু ক্রিকেটের সঙ্গে আত্মসম্মান-লজ্জার কোনো সম্পর্ক তিনি দেখছেন না। কারণ, মাঠে তিনি ‘চুরি-চামারি’ করতে নামেন না।
সিলেটে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগে শনিবার অধিনায়কের সংবাদ সম্মেলনের বেশিরভাগটা জুড়ে ছিল তার অবসর ও পারফরম্যান্স প্রসঙ্গ।
বিসিবি সভাপতি কিছুদিন আগে জানিয়েছেন, এই সিরিজের পর ওয়ানডের নেতৃত্ব নিয়ে নতুন করে ভাববেন। গত বছর বিশ্বকাপে বল হাতে মাশরাফি ছিলেন ভীষণ বিবর্ণ, এসেছে সেসব কথাও।
কিন্তু ‘পারফর্ম করাটা আত্মসম্মানের ব্যাপার’, একটি প্রশ্নে এটি জুড়ে দিতেই মাশরাফি জবাব দিলেন কড়া ভাষায়।
“আত্মসম্মান বা লজ্জা… আমি কি চুরি করি মাঠে? আমি কি চোর? খেলার সঙ্গে লজ্জা, আত্মসম্মান… এসব আমি মেলাতে পারি না। এত জায়গায় চুরি-চামারি হচ্ছে, তাদের লজ্জা নাই? আমি মাঠে এসে উইকেট না পেলে লজ্জা লাগবে? আমি কি চোর?”
“আমি কি বাংলাদেশের হয়ে খেলছি নাকি অন্য কোনো দেশের হয়ে, যে লজ্জা পেতে হবে! আমি পারিনি, আমাকে বাদ দিয়ে দেবে। ব্যাপারটি সিম্পল। কিন্তু লজ্জা-আত্মসম্মানবোধ আমি কার সঙ্গে দেখাতে যাব? আমি তো বাংলাদেশের হয়ে খেলছি। আমি কি বাংলাদেশের মানুষের বিপক্ষের মানুষ? এখন যে কেউ পারফরম না করতেই পারে। তার যদি নিবেদন না থাকে, শৃঙ্খলা না থাকে, সেসব নিয়ে প্রশ্ন হতে পারে।”
মাশরাফি শুধু বাংলাদেশের সফলতম ওয়ানডে অধিনায়কই নন, সফলতম বোলারও। অধিনায়কত্ব পাওয়ার পরও বল হাতে ছিলেন দারুণ সফল। তবে সেই পারফরম্যান্সে ভাটার টান দেখা গেছে গত বিশ্বকাপে। চোটের সঙ্গে লড়াই করেছেন, বিশ্বকাপ-জুড়ে ভুগেছেন হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে। নিজের সবশেষ পাঁচ ওয়ানডেতে পাননি উইকেট।
মাঠের ক্রিকেট নিয়ে এই প্রশ্ন, সমালোচনাকে স্বাগতই জানাচ্ছেন অধিনায়ক। কিন্তু প্রশ্নটির লম্বা উত্তরে আবারো বুঝিয়ে দিলেন, এখানে আত্মসম্মানকে টেনে আনায় তিনি কতটা বিরক্ত।
“উইকেট না-ই পেতে পারি। আমার সমালোচনা আপনারা করবেন। সমর্থকেরা করবে। কিন্তু লজ্জা পেতে হবে কেন?”
“উইকেট না পেলে সমালোচনা হবেই। কথা যখন আসে লজ্জা-আত্মসম্মানের, তখন আমার প্রশ্ন থাকে। সমালোচনা করুক, সমস্যা নেই। কিন্তু ক্রিকেট খেলতে এসে আমি কি আত্মসম্মান বিসর্জন দিতে এসেছি? আমি কি অন্য দেশের হয়ে খেলছি নাকি চুরি-চামারি করছি?”
সূত্র : বিডিনিউজ