একটি কৃত্রিম পায়ের আবেদন কহিনুরের

আপডেট: 08:38:23 08/08/2020



img

জয়নাল আবেদীন, শার্শা (যশোর) : ঝিকরগাছা উপজেলার নন্দী ডুমুরিয়ার গ্রামের বাসিন্দা কহিনুর বেগম বহুদিন যাবৎ ক্যানসারে আক্রান্ত। প্রায় দুই বছর আগে তার একটি পায়ে গ্যাংরিন আক্রান্ত হলে অপারেশনের মাধ্যমে হাঁটুর নিচ থেকে কেটে ফেলা হয়।
পরে পায়ের ক্ষতস্থানে বাসা বাঁধে মারণব্যাধি ক্যানসার। এ অবস্থায় তার চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন হয় প্রচুর অর্থ।
প্রথম অবস্থাতে তার চিকিৎসার টাকা কোনোভাবে যোগাড় করা গেলেও পরে আর খরচ যোগানো সম্ভব হচ্ছে না। এ অবস্থায় খুবই দুর্বিষহ জীবনযাপন করছেন কহিনুর।
গেল ঈদে কহিনুরের দুরাবস্থার কথা জানতে পেরে আবু তোরাব যুবসংঘের ঝিকরগাছা ইউনিটের ‘জাগো নারী জাগাও সমাজ’ প্রোজেক্টের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক সাজেদা খাতুন সংগঠনের পক্ষ থেকে কহিনুরের বাড়ি উপস্থিত হন।
তিনি কহিনুরের সঙ্গে কথা বলেন এবং আবু তোরাব যুবসংঘের চলতি ঈদ উপহার বিতরণ প্রোজেক্ট থেকে তাকে ঈদ-উপহার ও চিকিৎসার জন্য কিছু নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করেন।
সাজেদা খাতুন জানান, কহিনুর বেগমের স্বামী জায়েদ আলী খুব টানাপড়েনের মধ্যে দিয়ে তার স্ত্রী ও সংসার পরিচালনা করছেন। এলাকাবাসী কিছু সহযোগিতা করলেও তা প্রয়োজনের তুলনায় খুবই নগন্য।
কহিনুর বেগমের স্থায়ী ঠিকানা গ্রাম- নন্দী ডুমুরিয়া, পোস্টঃ বায়সা চাঁদপুর,
ঝিকরগাছা, যশোর।
তিনি সমাজের বিত্তশালী ব্যক্তিদের কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন।
কহিনুরের ধারণা, চিকিৎসা সহায়তা এবং একটা কৃত্রিম পা পেলে তিনি আবার স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারবেন।
আবু তোরাব যুবসংঘের উপদেষ্টা দেশের শীর্ষস্থানীয় উদ্ভাবক মিজানুর রহমান মিজান বলেন, ‘সারাজীবন অর্থের পিছনে না ছুটে নিজেদের আয়ের একটি অংশ এই সমস্ত অসহায় মানুষের মাঝে বিলিয়ে মানবসেবায় এগিয়ে আসা উচিৎ। তা না হলে সমাজ থেকে অতি দ্রুত মানুষের প্রতি মানুষের মায়া-মমতা উঠে যাবে। আমি আবু তোরাব যুবসংঘের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং দেশ ও দেশের বাইরের বিত্তশালী ব্যক্তিদের কাছে সাহায্যে কামনা করছি।’

আরও পড়ুন