একটি পেঁয়াজের দাম ১০০ টাকা!

আপডেট: 08:22:20 28/11/2019



img

আব্দুস সামাদ, সাতক্ষীরা : তিন-চারটি পেঁয়াজেই এক কেজি পূর্ণ। পেল্লায় সাইজের এই পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে সাতক্ষীরার বাজারে। চীনে উৎপাদিত এই পেঁয়াজ স্থানীয়দের চাহিদা মেটাতে ভূমিকা রাখছে। আবার কৌতূহলবশত মানুষ দেখতে ও কিনতেও আসছে।
বেশ কিছুদিন ধরেই বাজারে পেঁয়াজ আক্রা। চলতি মাসেই ইতিহাসের সবচেয়ে বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে দেশের বাজারে। অবস্থা বুঝে সরকার নানা দেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানির উদ্যোগ নেয়। বেসরকারি বড় কয়েকটি কোম্পানি ইতিমধ্যে চীন, মিসর, তুরস্ক, মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ আমদানি করেছে। এমনকী উড়োজাহাজে করেও পেঁয়াজ আনার নজির সৃষ্টি হয়েছে এবার।
বর্তমানে সাতক্ষীরার খুচরা বাজারে ভালো মানের দেশি পেঁয়াজ প্রতি কেজি ২৪০-২৫০ টাকা, মিয়ানমারের পেঁয়াজ ২২০-২৩০ টাকা এবং চীন-মিসরের বড় পেঁয়াজ ২০০-২২০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। বলা যেতে পারে পেঁয়াজের এই দাম সাধারণের নাগালের বাইরে।
সাতক্ষীরার সুলতানপুর বড়বাজারের আলুর আড়তদার ফজলুর রহমান বলেন, ‘৪৬০ গ্রাম ওজনের একটি পেঁয়াজ ১০০ টাকা দিয়ে কিনেছি। কেজিপ্রতি দাম ২২০ টাকা। জাহাঙ্গীর স্টোর নামে একটি দোকান থেকে ৪৬০ গ্রাম ওজনের পেঁয়াজটি কিনেছি আমি।’
সাতক্ষীরা জেলা মার্কেটিং অফিসার এস এম আব্দুল্লাহ বলেন, বড় বাজারে কিছু পেঁয়াজ এসেছে, যেগুলোর সাইজ অনেক বড়; তিন থেকে চারটিতে কেজি পূরছে। তবে একটি পেঁয়াজ ১০০ টাকা বিক্রি হয়েছে- এমন তথ্য আমার কাছে নেই।’
কয়েকদিনের মধ্যে আজ পেঁয়াজের দাম কিছুটা কমেছে বলে জানান মার্কেটিং অফিসার।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চীন থেকে আমদানি করা এক পিস পেঁয়াজ ১০০ টাকা দিয়ে কিনেছেন সাতক্ষীরার ফজলুর রহমান। ওজন ভেদে এসব চীনা পেঁয়াজ ১০০ টাকার কাছাকাছি দরে বিক্রি হচ্ছে। কেজি হিসেবে এর দাম ২০০-২২০ টাকা।
বড়বাজারের ব্যবসায়ী জহুরুল ইসলাম বলেন, ‘কেনা দামের চেয়ে প্রত্যেক মালামালে কেজিতে ১০-১৫ টাকা বেশি বিক্রি করি। অতিরিক্ত দামে পেঁয়াজ কেনায় বেশি দামেই বিক্রি করতে হয়। নতুন পেঁয়াজ বাজারে এলে দাম কমবে। আমরাও চাই পেঁয়াজের দাম কমুক। পরিচিত ক্রেতা এলে তাদের কাছে অনেক সময় কেনা দামে বিক্রি করে দিই।’

আরও পড়ুন