কলারোয়ায় পরিবারের চারজনকে গলা কেটে হত্যা

আপডেট: 06:48:58 15/10/2020



img
img

আব্দুস সামাদ, সাতক্ষীরা ও কে এম আনিছুর রহমান, কলারোয়া : কলারোয়ায় একই পরিবারের চারজনকে গলা কেটে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার ভোররাতে উপজেলার হেলাতলা ইউনিয়নের খলসি গ্রামে এই নৃশংস ঘটনা ঘটে।
নিহতরা হলেন, খলসি গ্রামের শাহাজান আলীর ছেলে হ্যাচারি মালিক শাহিনুর রহমান (৪০), তার স্ত্রী সাবিনা খাতুন (৩০), ছেলে সিয়াম হোসেন মাহি (৯) ও মেয়ে তাসনিম (৬)।
নিহত শাহিনুর রহমানের ছোট ভাই রায়হানুল ইসলাম জানান, বাড়িতে মা ও বড় ভাইয়ের পরিবারের চারজনসহ তারা ছয়জন থাকতেন। মা গতকাল আত্মীয়ের বাড়িতে ছিলেন। তিনি (রায়হানুল) ছিলেন পাশের ঘরে। ভোরে পাশের ঘর থেকে তিনি বাচ্চাদের গোঙানির শব্দ শুনতে পান। এগিয়ে গিয়ে দেখেন, ঘরের বাইরে থেকে আটকানো। দরজা খুলে দেখা যায় বিভৎস দৃশ্য। এর কিছুক্ষণ পর বাচ্চারাও মারা যায়।
তিনি আরো জানান, তাদের সঙ্গে জমি জায়গা নিয়ে পাশের কিছু লোকের বিরোধ ছিল। কিন্তু কারা এ ঘটনা ঘটালো তা এখনো বুঝতে পারছে না হতভাগ্য পরিবারটি।
কলারোয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মফিজুল ঘটনাস্থল থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, নিজেদের ঘরের মধ্যে গৃহপ্রধান শাহিনুর রহমানসহ চারজনকে জবাই করে হত্যা করা হয়েছে। এদের মধ্যে শাহিনুরের পা বাধা ছিল এবং বাড়িটির চিলেকোঠার দরজা খোলা ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, ছাদের চিলেকোঠার দরজা দিয়ে হত্যাকারীরা ঘরের মধ্যে প্রবেশ করে। ঘটনার রহস্য উন্মোচনে পুলিশ কাজ শুরু করেছে।
কলারোয়া থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি হারান পাল জানান, নিজেদের ঘরের মধ্যে গৃহপ্রধান শাহিনুর রহমানসহ চারজনকে জবাই করে হত্যা করা হয়েছে। সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য লাশগুলো সাতক্ষীরা মর্গে পাঠানো হয়েছে।
সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মির্জা সালাউদ্দীন ও র‌্যাব ও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কমকর্তা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

আরও পড়ুন