কুষ্টিয়ায় পিস্তল ওয়াকিটকি হাতকড়াসহ ৩ ডাকাত ধরা

আপডেট: 06:32:51 30/11/2020



img
img
img

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ায় দুটি বিদেশি পিস্তল, কার, ওয়াকিটকি, হাতকড়াসহ গোয়েন্দা ও র‌্যাব পরিচয়দানকারী আন্তঃজেলা ডাকাত দলের মূল হোতাসহ তিনজনকে গ্রেফতারের দাবি করেছে পুলিশ।
গ্রেফতার ব্যক্তিরা হলেন ডাকাতি-ছিনতাইকারী চক্রের মূল হোতা ঢাকার সাভারের বাসিন্দা অবসরপ্রাপ্ত নায়েব সুবেদার আরিফুল ইসলাম (৪২) ও নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের কাদিরপুরের তোফাজ্জেল হক ওরফে নুরুল হকের ছেলে ডাকাত দলের সদস্য খোকন মিয়া ওরফে জামাল মিয়া (৫৫), মুন্সিগঞ্জ সদরের মোল্লাকান্দি গ্রামের আব্দুর রব ওরফে মাজেদ মিয়ার ছেলে গাড়িচালক মো. হারুন ওরফে বাবু মিয়া (৪২)।
সোমবার বেলা ১১টায় পুলিশ লাইনে আয়োজিত বিফ্রিংয়ে পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত সাংবাদিকদের বলেন, গ্রেফতার ব্যক্তিরা জেলার বাইরে থেকে এসে দীর্ঘদিন ধরে কুষ্টিয়ার বিভিন্ন স্থানে গোয়েন্দা পুলিশ ও র‌্যাব পরিচয় দিয়ে ওয়াকিটকি, হাতকড়া ও পিস্তল দেখিয়ে কৌশলে ডাকাতি ও ছিনতাই করতো। পুলিশ বিভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহার করে তাদের ধরার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিল। গেল রাতে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার বারমাইল এলাকায় ডাকাতির প্রস্তুতিকালে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল তাদের গ্রেফতার করে। এসময় পুলিশ তাদের কাছ থেকে দুটি পিস্তল, চাবিসহ একটি হাতকড়া, একটি ওয়াকিটকি, সেনাবাহিনী ও স্পেশাল ফোর্স কমান্ড লোগোযুক্ত দুটি টি-শার্ট, নিরাপত্তা বাহিনীর ব্যবহৃত দুই জোড়া বুট, কালো ক্যাপ, ১১ বোতল ফেনসিডিল, ডাকাতি করা কিছু সোনা, নগদ ৯২ হাজার টাকা ও বিভিন্ন ধরনের ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করে।
পুলিশ বলছে, গ্রেফতার তিনজনের সম্পর্ক সৃষ্টি হয় ঢাকায় থাকাকালে। এরপর তারা দীর্ঘদিন ধরে গাড়ি নিয়ে কুষ্টিয়ায় এসে গরু ব্যবসায়ী, অন্যান্য ব্যবসায়ী, নারীদের টার্গেট করে কৌশলে ছিনতাই ও ডাকাতি করে আসছিল। এই পর্যন্ত তারা কুষ্টিয়ায় আটটি ডাকাতি-ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটিয়েছে। অস্ত্র, মাদক ও ডাকাতির তিনটি মামলায় তাদেরকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন