কুষ্টিয়ায় ভায়রা হত্যাকারীর মৃত্যুদণ্ড

আপডেট: 03:09:56 07/11/2019



img

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার মিরপুর থানার আলোচিত চেনি মোল্লা হত্যা মামলায় তার ভায়রা লালন গাজীকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।
আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরুপকুমার গোস্বামী এ রায় ঘোষণা করেন। এসময় দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি লালন গাজী আদালতে উপস্থিত ছিলেন।
আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট অনুপকুমার নন্দী জানান, ২০১৭ সালের ১২ মার্চ পারিবারিক কলহে লালন গাজীর স্ত্রী শ্যামলীকে মারধর করে ভায়রা চেনি মোল্লা। দুই দিন পর ১৪ মার্চ চেনি মোল্লা মিরপুর সাপ্তাহিক বাজারে এলে ক্ষিপ্ত লালন গাজী জনসম্মুখে হাতুড়িপেটা ও কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে তাকে। চিকিৎসার জন্য মিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে চেনির মৃত্যু হয়। বাজারের লোকজনের সহায়তায় মিরপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকেই অভিযুক্ত লালন গাজীকে আটক করে।
এই ঘটনায় লালন গাজীকে একমাত্র আসামি করে নিহতের বড় ভাই মিরাজুল ইসলাম মেনি মোল্লা হত্যা মামলা করেন। শুনানি ও সাক্ষে লালনের বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়। আজ আদালত মামলার একমাত্র আসামিকে দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন। পরে তাকে কুষ্টিয়া জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।
দণ্ডপ্রাপ্ত লালন গাজী মিরপুর উপজেলার চিথলিয়া গ্রামের মৃত মকবুল গাজীর ছেলে।

আরও পড়ুন