কোটচাঁদপুরে নির্বাচনী উত্তাপ, আগুন ভাঙচুর নানা অভিযোগ

আপডেট: 07:17:39 23/01/2021



img

কোটচাঁদপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : কোটচাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর নির্বাচনী অফিস আগুনে পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ করা হচ্ছে। একইসাথে এক স্বতন্ত্র প্রার্থীর প্রচার মাইক ভাঙচুর করা হয়েছে বলে অভিযোগ।  
নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী শাহাজান আলী অভিযোগ করেছেন, শুক্রবার রাত ১২টার দিকে কোটচাঁদপুর শহরের সলেমানপুর ও রুদ্রপুরে দুটি নির্বাচন অফিস পুড়িয়ে দিয়েছে প্রতিপক্ষ প্রার্থীর সন্ত্রাসীরা। এসময় তারা কর্মীদের মারপিটও করেছে। তিনি বলেন, 'আমার বিপক্ষ মেয়র প্রার্থী শহিদুজ্জামান সেলিমের ভাই শাহিন তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে এ হামলা চালিয়েছে। এ ঘটনায় মামলা করবো।'
অবশ্য মেয়র প্রার্থী শহিদুজ্জামান সেলিম বলেন, 'আমার জনপ্রিয়তার কারণে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শাহাজান আলী মনে করছেন তিনি পরাজিত হবেন। এজন্য তিনি আমার ও আমার ভাই শাহিনের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ এনেছেন। এতে আমরা ভীত নই।'
এদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী জাহিদুল ইসলাম জাহিদ অভিযোগ করেছেন, শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে তার প্রচার মাইক সলেমানপুর এলাকায় গেলে নৌকা প্রতীকের কর্মী-সমর্থকরা তা ভাঙচুর ও প্রচারের মেমোরি কার্ড ছিনিয়ে নেয়।
অন্যদিকে, ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী সালাউদ্দীন বুলবুল সিডল অভিযোগ করেছেন, প্রতিদিনই তার কর্মীবাহিনীকে প্রচারণায় বাধা দেওয়া হচ্ছে। নির্বাচন কর্মকর্তাকে মৌখিক অভিযোগ করেও কোনো লাভ হচ্ছে না। যে কারণে তিনি আজ শনিবার লিখিতভাবে অভিযোগ জানিয়েছেন।
কোটচাঁদপুর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহবুবুল আলম বলেন, 'আগুন দেওয়া ও প্রচার মাইক ভাঙচুরের বিষয়টি শুনেছি। তবে  কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।'
আগামী ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী দলের উপজেলা সাধারণ সম্পাদক শাহাজান আলী, বিএনপি মনোনিত প্রার্থী পৌর শাখার আহ্বায়ক সাবেক মেয়র সালাউদ্দীন বুলবুল সিডল, স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান মেয়র জাহিদুল ইসলাম এবং পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী) শহিদুজ্জামান সেলিম।

আরও পড়ুন