কোটচাঁদপুর কলেজে এবার লিন্টেল ভেঙে শ্রমিক নিহত

আপডেট: 06:56:29 14/10/2020



img

কোটচাঁদপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : কোটচাঁদপুর সরকারি কলেজে এবার শিক্ষক কমন রুমের নির্মাণাধীন লিন্টেল ভেঙে মাথায় পড়ে এক নির্মাণশ্রমিক নিহত হয়েছেন।
নিহত শ্রমিকের নাম আব্দুল মালেক (৫০)। তিনি কোটচাঁদপুর শহরের দুধসরা এলাকার কালুশাহের ছেলে।
কলেজের অধ্যক্ষ অনুতোষকুমার জানান, ১৫ লাখ ব্যয়ে কোটচাঁদপুর সরকারি কলেজের ভবন সংস্কারের কাজ চলছে। কাজটি করছে কালীগঞ্জের মেসার্স পিন্টু ট্রেডার্স। কমন রুমের লিন্টেল ঢালাই হয় দুই দিন আগে। অথচ কাউকে না জানিয়ে নির্মাণশ্রমিক মালেক কাজ করতে গিয়ে জানালার কার্নিশে লাগালো বাঁশ খুলে ফেলে। এতে জানালার কার্নিশ ও লিন্টেল ভেঙে মালেকের মাথায় পড়ে। গুরুতর আহত মালেককে উদ্ধার করে কলেজশিক্ষকরা স্থানীয় হাসাতালে নিয়ে যান। হাসপাতালে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালে রেফার করেন। কিন্তু যশোর যাওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।
কলেজের এ নির্মাণ কাজের গুণগত মান নিয়ে ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে। লিন্টেল ভেঙে শ্রমিক নিহতের ঘটনা সেই অভিযোগ প্রমাণ করলো।
সরেজমিনে দেখা গেছে, ওই বিল্ডিংয়ে লিন্টেলের সঙ্গে পিলারের কোনো বন্ধন নেই। আলগা লিন্টেল ওয়ালের ওপর ঢালাই দেওয়া হয়েছে।
উপ-সহকারী প্রকৌশলী তুহিন বলছেন, ঢালাই দেওয়ার সময় তাকে কেউ জানায়নি।
অধ্যক্ষ অনুতোষকুমার বলছেন, ‘এটা দেখার দায়িত্ব আমার নয়।’
বিষয়টি নিয়ে ঠিকাদার মিলন বলেন, ‘উপ-সহকারী প্রকৌশলী তুহিন সাহেব যেভাবে আমাদের বলেছেন, আমি সেইভাবে কাজ করে যাচ্ছি। তিনিই বলেছেন, লিন্টেলের কোনো বন্ধন লাগবে না । লিন্টেল ঢালাই ওয়ালের ওপর দিলেই চলবে।’
এর আগে নানা কারণে বর্তমান অধ্যক্ষ অনুতোষকুমারের বিরুদ্ধে দলমতপেশানির্বিশেষে মানুষ রাস্তায় নেমে আসেন।
শ্রমিক নিহতের ঘটনায় কোটচাঁদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহবুবুল আলম বলেন, ‘আমি নিহতের বাসায় গিয়েছিলাম। নিহতের পরিবারকে থানায় আসতে বলা হয়েছে।’

আরও পড়ুন