খুলনায় ঈদের প্রধান জামাত ৮টায় সার্কিট হাউস ময়দানে

আপডেট: 01:22:10 25/06/2017



img

খুলনা অফিস : খুলনায় ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল সাড়ে আটটায় নগরীর সার্কিট হাউজ ময়দানে।
সকাল ৯টায় ঈদের দ্বিতীয় ও শেষ জামাত অনুষ্ঠিত হবে টাউন জামে মসজিদে।
মিজানুর রহমান মিজান এমপি ও খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান শনিবার সার্কিট হাউজ ময়দানে ঈদগাহের প্রস্তুতি কাজ সরেজমিনে পরিদর্শন করেন।
অপরদিকে, আবহাওয়া প্রতিকূল হলে সকাল আটটা, নয়টা এবং দশটায় টাউন জামে মসজিদে তিনটি জামাত এবং সকাল সাড়ে আটটায় কোর্ট জামে মসজিদে একটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। সিটি করপোরেশন পরিচালিত বায়তুন নূর জামে মসজিদ কমপ্লেক্সে সকাল নয়টা এবং দশটায় পবিত্র দুটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে।
এছাড়া নগরীর বসুপাড়া ইসলামাবাদ কমিউনিটি সেন্টার ঈদগাহ, লায়ন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজ ঈদগাহ, খুলনা আলিয়া মাদরাসা, বায়তুশ শরফ জামে মসজিদ, খালিশপুর ঈদগাহ, পুলিশ লাইন ময়দান, ডাকবাংলো জামে মসজিদ, ফেরিঘাট জামে মসজিদ, মতি মসজিদ, মদনী মসজিদ, ময়লাপোতা বায়তুল আমান জামে মসজিদ, জামাতখানা মসজিদ, লবণচরা জামে মসজিদ, শিপইয়ার্ড জামে মসজিদ, দক্ষিণ টুটপাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ, দাদা ম্যাচ ফ্যাক্টরি জামে মসজিদ, রূপসা জামে মসজিদ, পুলিশ লাইন গ্লাক্সো জামে মসজিদ, জাহাননগর জামে মসজিদ, টুটপাড়া মেইন রোড জামে মসজিদ, পিটিআই জামে মসজিদ, মক্কী মসজিদ, আল হেরা জামে মসজিদ, কালেক্টরেট মসজিদ, কাগজীবাড়ি মসজিদ, বাইতুন আমান জামে মসজিদ, ইকবালনগর জামে মসজিদ, টুটপাড়া মরিয়ম মসজিদ, বড়মির্জাপুর ইউছুফিয়া জামে মসজিদ, হেলাতলা জামে মসজিদ, রেলওয়ে জামে মসজিদ, সোনাডাঙ্গা কেন্দ্রীয় বাসটারমিনাল জামে মসজিদ, বয়রা জামে মসজিদ, রায়েরমহল প্রাথমিক বিদ্যালয় ঈদগাহ, ফায়ার ব্রিগেড ময়দান, নেছারিয়া মাদরাসা ময়দান, নিউজপ্রিন্ট মিল জামে মসজিদ, হার্ডবোর্ড মিল জামে মসজিদ, প্লাটিনাম জুবিলি জুটমিলস জামে মসজিদ, ক্রিসেন্ট জুটমিল জামে মসজিদ, বাইতুল ফালাহ জামে মসজিদ, দেয়ানা মধ্যপাড়া জামে মসজিদ, ফুলবাড়িগেট জামে মসজিদ, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ, খুলনা প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ, বিএল কলেজ জামে মসজিদসহ নগরীর বিভিন্ন ঈদগাহ ও মসজিদে নির্ধারিত সময়ে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।
ঈদের আগে নগরীর সার্কিট হাউস ময়দান ও প্রধান প্রধান সড়ক ও গুরুত্বপূর্ণ চত্বর, সড়কদ্বীপ জাতীয় পতাকা এবং বাংলা ও আরবি ঈদ মোবারক খচিত ব্যানার দিয়ে সজ্জিত করা হচ্ছে।
এদিকে, ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী খুলনা মহানগরী ও মহানগরীর বাইরের বিভিন্ন স্পটে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। এছাড়া আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা, সার্বিক নিরাপত্তা এবং যে কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা প্রতিরোধে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে সর্বক্ষণিক যোগাযোগ স্থাপনের জন্য ঈদ এবং এর আগে-পরের তিনদিন অর্থাৎ মোট সাত দিন পুলিশের কন্ট্রোলরুম স্থাপন করা হয়েছে।

আরও পড়ুন