খুলনায় ঈদে বর্ণাঢ্য আয়োজন

আপডেট: 02:33:49 21/06/2017



img

খুলনা অফিস : খুলনায় পবিত্র ঈদুল ফিতর যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের সাথে উদযাপনের লক্ষ্যে বর্ণাঢ্য কর্মসূিচ গ্রহণ করা হয়েছে।
আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে ঈদুল ফিতরের প্রথম ও প্রধান জামাত সকাল সাড়ে আটটায় খুলনা সার্কিট হাউজ ময়দানে এবং সকাল নয়টায় দ্বিতীয় ও শেষ জামাত খুলনা টাউন জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে। জেলা প্রশাসনের প্রস্তুতি সভার উদ্ধৃতি দিয়ে বুধবার এক তথ্য বিবরণীতে এ তথ্য জানানো হয়।
তথ্য বিবরণীতে জানানো হয়, প্রতিকূল হলে সকাল আটটায় টাউন জামে মসজিদে প্রথম ও প্রধান জামাত, নয়টায় দ্বিতীয় জামাত এবং দশটায় তৃতীয় ও শেষ জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া আবহাওয়া প্রতিকূল হলে কোর্ট জামে মসজিদেও সকাল সাড়ে আটটায় একটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে।
অপরদিকে, নগরীর বসুপাড়া ইসলামাবাদ ঈদগাহে সকাল পৌনে আটটায় ও নিউমার্কেটস্থ বায়তুন-নূর মসজিদ কমপ্লেক্সে সকাল আটটায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। খুলনা সিটি করপোরেশনের ৩১টি ওয়ার্ডে সিটি করপোরেশনের সহায়তায় ও ওয়ার্ড কাউন্সিলদের তত্ত্বাবধানে পৃথকভাবে নির্ধারিত সময় অনুযায়ী ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া খুলনা আলিয়া মাদরাসা জামে মসজিদ, খালিশপুর ঈদগাহ ময়দান, সোনাডাঙ্গা আবাসিক এলাকায় বায়তুল্লাহ জামে মসজিদ, নিরালা আবাসিক এলাকা ঈদগাহ, খানজাহান নগর খালাসী মাদরাসা ঈদগাহ, দৌলতপুর ঈদগাহসহ অন্যান্য মসজিদ ও ঈদগাহসমূহে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সময় নির্ধারণসাপেক্ষে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে।
ঈদের দিন সকল সরকারি, আধা-সরকারি, বেসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা এবং সূর্যাস্তের আগে নামানো হবে। নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক ও গুরুত্বপূর্ণ চত্বর, সড়কদ্বীপ ও সার্কিট হাউস ময়দান জাতীয় পতাকা এবং বাংলা ও আরবিতে ‘ঈদ মোবারক’ লেখা ব্যানার দিয়ে সজ্জিত করা হবে। নগরীর বিভিন্ন হাসপাতাল, কারাগার, সরকারি শিশুসদন, ভবঘুরে কল্যাণ কেন্দ্র ও দুস্থ কল্যাণ কেন্দ্রে এ উপলক্ষে বিশেষ খাবার পরিবেশন করা হবে।
ঈদের পরে ২৮ জুন সন্ধ্যায় শহীদ হাদিস পার্কে খুলনা জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে রাষ্ট্রীয় নীতি ও ধর্মীয় অনুভূতির সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ চলচ্চিত্র, প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হবে। ঈদুল ফিতরের গুরুত্ব সম্পর্কে ইসলামিক ফাউন্ডেশন এবং ইমাম পরিষদের উদ্যোগে সেমিনার ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হবে। ঈদের দিন বিকেলে শিশু পার্কসমূহে দুস্থ ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের বিনামূল্যে প্রবেশের ব্যবস্থা থাকবে। জেলা ক্রীড়া সংস্থা জেলা স্টেডিয়ামে প্রীতি ফুটবল, জেলা শিল্পকলা একাডেমী অফিসার্স ক্লাবে ঈদ পুনর্মিলনী এবং জেলা শিল্পকলা একাডেমী সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য শিশু আনন্দমেলার আয়োজন করবে।
ঈদ উপলক্ষে আইনশৃংঙ্খলা রক্ষার্থে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মহানগর ও মহানগরের বাইরের বিভিন্ন স্পটে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। ঈদুল ফিতরের সময় আতশবাজি ও পটকা ফোটানো, রাস্তা বন্ধ করে স্টল তৈরি, উচ্চস্বরে মাইক, ড্রাম বাজানো, লাল রঙের পানি ছিটানো এবং বেপরোয়াভাবে মোটরসাইকেল চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এছাড়া ঈদ যাত্রায় বাস, লঞ্চ, স্টিমারে যাতে অতিরিক্ত যাত্রী উঠতে না পারে এবং বেপরোয়াভাবে যান চলাচল করতে না পারে সে জন্য আইনশৃংঙ্খলা বাহিনী নিয়োজিত থাকবে।

আরও পড়ুন