খুলনায় ছয় খুনির যাবজ্জীবন

আপডেট: 05:36:19 20/01/2020



img

খুলনা অফিস : খুলনার বটিয়াঘাটায় রিপন রায় (১৯) নামে এক যুবককে হত্যার দায়ে ছয় আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। এছাড়া দোষী সাব্যস্ত না হওয়ায় দুইজনকে খালাস দেওয়া হয়েছে।
সোমবার দুপুরে খুলনার জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. সাইফুজ্জামান হিরো এ রায় ঘোষণা করেছেন।
রিপন রায় বটিয়াঘাটা উপজেলার গড়িয়াডাঙ্গার রামপ্রসাদ রায়ের ছেলে। রিপন বৃত্তি খলশী বুনিয়ায় সিডি দোকানের ব্যবসা করতেন।
দণ্ডপ্রাপ্তরা হলো, বটিয়াঘাটা উপজেলার বৃত্তি শলুয়া এলাকার নুর মোহাম্মদের ছেলে মনিরুজ্জামান ঘরামী, পারশেমারির মজিদ সরদারের ছেলে হুমায়ুন সরদার, গাওঘরার আমজেদ সরদারের ছেলে জাহাঙ্গীর সরদার, নুর শেখের ছেলে এনামুল শেখ, খালেক শেখের ছেলে কাদের শেখ ও সিরাজ শেখের ছেলে পিন্টু শেখ।
খালাস পাওয়া দুইজন হলেন একই এলাকার হুমায়ুন কবির বাবু ও হান্নান মল্লিক।
আদালতের উচ্চমান বেঞ্চ সহকারী মো. সায়েদুল হক শাহীন নথির বরাত দিয়ে জানান, ২০০৭ সালের ১ এপ্রিল রাতে বটিয়াঘাটা উপজেলার গড়িয়াডাঙ্গার রামপ্রসাদ রায়ের ছেলে রিপন তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান (সিডির দোকান) থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। আসামিরা পূর্বশত্রুতার জের ধরে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যার পর লাশ ফেলে রেখে যায়।
পরদিন সকালে বৃত্তি খলশীবুনিয়া এলাকার রাস্তার পাশে রিপনের মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দেয়। বটিয়াঘাটা থানা পুলিশ রিপনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।
এঘটনায় ২ এপ্রিল রিপনের বাবা বটিয়াঘাটা থানায় হত্যা মামলা করেন (নম্বর ০১)।
২০১০ সালের ২০ জুলাই পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) এসআই খান মাহবুবুর রহমান আটজনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।
মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের কৌশূলি ছিলেন বিশেষ পিপি আরিফ মাহমুদ লিটন।

আরও পড়ুন