গরিবের চাল আত্মসাৎ : চেয়ারম্যানসহ চারজন জেলে

আপডেট: 06:32:18 24/09/2020



img
img

শ্যামলী খন্দকার, কুষ্টিয়া : কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানা এলাকার গোস্বামী দুর্গাপুর ইউনিয়নে গরিব ও অসহায় ব্যক্তিদের নামে বরাদ্দ ওএমএস-এর চাল আত্মসাতের অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যান দবির উদ্দিন বিশ্বাসসহ চারজনের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন আদালত।
বৃহস্পতিবার দুপুরে কুষ্টিয়ার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দ্বিতীয় আদালতের বিচারক মো. মহসিন হাসানের আদালতে আসামিরা উপস্থিত হয়ে জামিনের আবেদন করেন। বিচারক তাদের আবেদন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন।
আসামিরা হলেন- কুষ্টিয়ার গোস্বামী দুর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দবির উদ্দিন বিশ্বাস, একই ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মারুফুল ইসলাম, চালের ডিলার মন্টু হোসেন এবং এক নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সরোয়ার হোসেন।
অভিযোগে বলা হয়েছে, কুষ্টিয়া সদর উপজেলার গোস্বামী দুর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দবির উদ্দিন বিশ্বাস ও তার সহযোগীদের যোগসাজসে বিগত দীর্ঘ চার বছর ধরে গরিব-দুস্থদের জন্য সরকারনির্ধারিত খাদ্য সহায়তা প্রকল্পের দশ টাকা কেজি দরের চাল উত্তোলন ও তা তালিকাভুক্ত দুস্থদের না দিয়ে আত্মসাৎ করা হয়। এসংক্রান্ত একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন মিডিয়ায় প্রচার হলে তা আদালতের দৃষ্টিগোচর হয়।
এ ঘটনায় ওই ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে গত ১৯ এপ্রিল কুষ্টিয়ার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সেলিনা খাতুন ক্রিমিন্যাল মিসকেস [নম্বর ০১/২০২০ ফৌদারি কার্যবিধি ১৯০(১)(সি)] ধারায় আমলযোগ্য মামলার আদেশ দেন কুষ্টিয়ার সদর থানা পুলিশকে। এই বিষয়ে ২ জুনের মধ্যে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণসহ প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আদেশ দেন আদালত।
পরে অভিযোগ তদন্ত করে কুষ্টিয়া সদর থানা পুলিশ আদালতে একটি প্রতিবেদন দাখিল করে। প্রতিবেদনে গরিব ও অসহায় ব্যক্তিদের নামে বরাদ্দ করা ওএমএস-এর চাল আত্মসাতের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া যায় বলে উল্লেখ করা হয়।
কুষ্টিয়ার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের সহকারী কৌঁসুলি (এপিপি) সুমিত্রা বিশ্বাস জানান, গোস্বামী দুর্গাপুর ইউনিয়নে গরিব ও অসহায় ব্যক্তিদের নামে সরকারের বরাদ্দ করা ওএমএস-এর চাল আত্মসাতের ঘটনায় পেনাল কোডের ১৮৬০-এর ৪০৬, ৪২০ এবং ৩৪ ধারায় গোস্বামী দুর্গাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দবির উদ্দিন বিশ্বাস, সদস্য মারুফুল ইসলাম, চালের ডিলার মন্টু হোসেন এবং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সরোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নেন আদালত। বৃহস্পতিবার দবির উদ্দিন বিশ্বাসসহ আসামিরা আদালতে উপস্থিত হয়ে জামিন আবেদন করলে বিচারক তা নামঞ্জুর করে অভিযুক্তদের জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন। এর আগে আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি ছিল বলে জানান এপিপি।

আরও পড়ুন