চাঁদাবাজির অভিযোগে স্কুলশিক্ষকসহ আটক ৭

আপডেট: 07:50:21 17/02/2020



img

স্টাফ রিপোর্টার : চাঁদাবাজির অভিযোগে যশোরের অভয়নগর উপজেলার প্রেমবাগ এলাকা থেকে একজন স্কুলশিক্ষকসহ সাতজনকে আটক করেছে পুলিশ। রোববার রাতে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। সোমবার দুপুরে যশোর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানানো হয়।
ওই স্কুলশিক্ষকের নাম সৈয়দ মোস্তাফিজুর রহমান রানা (৪০)। তিনি অভয়নগরের বনগ্রাম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞানের শিক্ষক। তিনি একজন পেশাদার চাঁদাবাজ বলে পুলিশ জানিয়েছে। আটক সহযোগীরা হলেন—আজাদ রহমান (৪২), সৈয়দ ওয়াহিদুল ইসলাম মিন্টু (৪০), মোহাম্মদ পিন্টু (৩৫), জিয়ার মোল্লা (৩৫), আল আমিন হোসেন (২৩) এবং গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার চরবয়রা গ্রামের হাবিবুর রহমান (৫৮)।
যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম জানান, প্রেমবাগ এলাকায় ডিপো করে যশোর-খুলনা মহাসড়কের উন্নয়ন কাজ করছে তমা কনস্ট্রাকশন নামে একটি প্রতিষ্ঠান। ওই প্রতিষ্ঠানে আলভী ট্রেডার্স নামে নারায়ণগঞ্জের অপর একটি কোম্পানি গ্রিন ওয়েল নামের জ্বালানি তেল সরবরাহ করে। প্রেমবাগ এলাকার স্কুলশিক্ষক সৈয়দ মোস্তাফিজুর রহমান রানা ও তার সহযোগীরা বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদের নামে গত ১০ মাস ধরে জ্বালানি তেলের ট্রাকে চাঁদা আদায় করে আসছিলেন। সর্বশেষ আলভী ট্রেডার্সের লোকজন চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে রবিবার একটি ট্যাংকলরিসহ চালক ও হেলপারকে আটক করে এক লাখ ৬০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন তারা। পরে ৩০ হাজার টাকায় সমঝোতা হয়।
এরপর আলভী ট্রেডার্সের ম্যানেজার আমির হোসেন ইমন বিষয়টি ডিবি পুলিশকে জানায়। ডিবি পুলিশ সদস্যরা সাদাপোশাকে ম্যানেজার আমির হোসেন ইমনকে সঙ্গে নিয়ে রবিবার রাত দশটার দিকে চাঁদার টাকা দিতে যান এবং হাতেনাতে স্কুলশিক্ষক সৈয়দ মোস্তাফিজুর রহমানকে আটক করেন। এরপর তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ছয় সহযোগীকে আটক করেন তারা। এ সময় ট্যাংকলরির চালক ও হেলপারকে উদ্ধার করা হয়।
এ ঘটনায় অভয়নগর থানায় ওই সাত জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা হয়েছে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে যশোরের বিডি ওসি মারুফ আহম্মদ উপস্থিত ছিলেন।  

আরও পড়ুন