চুয়াডাঙ্গা সীমান্তে ৩০ লাখ টাকা উদ্ধার

আপডেট: 07:10:09 15/09/2019



img

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি : চুয়াডাঙ্গার ভারত সীমান্তবর্তী দামুড়হুদা উপজেলার কুতুবপুর গ্রাম থেকে সাড়ে ৩০ লাখ টাকা ও মোটরসাইকেলসহ একজনকে আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।
আটক ব্যক্তি কুতুবপুর গ্রামের সুতাপাড়ার মরহুম জামাত মণ্ডলের ছেলে আব্দুর রাজ্জাক (৩৪)।
আজ রোববার সকাল আটটার দিকে কার্পাসডাঙ্গা বাজারে যাওয়ার সময় গ্রামের কবরস্থানের কাছ থেকে তাকে আটক করা হয়। এ সময় তার দেহ তল্লাশি করে কোমরে বেঁধে রাখা অবস্থায় বাংলাদেশি টাকাগুলো উদ্ধার করেন বিজিবি সদস্যরা।
চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পরিচালক সাজ্জাদ সরোয়ার এদিন দুপুরে জানান, গোপনে খবর পেয়ে মুন্সীপুর বিওপির টহল কমান্ডার সুবেদার মতিউর রহমানের নেতৃত্বে একদল সদস্য কুতুবপুর গ্রামের কবরস্থানের কাছে অবস্থান নেন। এ সময় সেখান থেকে আব্দুর রাজ্জাক তার লাল রঙের টিভিএস মোটরসাইকেলে চেপে কার্পাসডাঙ্গা বাজারের দিকে যাচ্ছিলেন। বিজিবি সদস্যরা গতিরোধ করে তার দেহ তল্লাশি করলে ওই টাকাগুলো কোমরে বাঁধা অবস্থায় পাওয়া যায়।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের এক সদস্য জানান, কুতুবপুর গ্রামের পশ্চিমপাড়ার মরহুম জোয়াদের ছেলে বিজিবির কথিত লাইনম্যান আকবর (৫২) ও তার মেয়ে-জামাই একই পাড়ার নজরুলের ছেলে নাজমুলসহ (৪০) একটি চক্র এ এলাকায় মুদ্রা, সোনা ও ফেনসিডিল চোরাচালানে জড়িত। কিন্তু ভয়ে কেউ আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কাছে তথ্য দেন না।
বিজিবি পরিচালক জানান, সুবেদার মতিউর রহমান বাদী হয়ে আটক আব্দুর রাজ্জাকের বিরুদ্ধে দামুড়হুদা থানায় মামলা করেছেন।

আরও পড়ুন