চৌগাছায় এমপির মতবিনিময়, গরহাজির সভাপতি-সম্পাদক

আপডেট: 08:46:37 09/06/2021



img

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি: চৌগাছার ফুলসারা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের মতবিনিময়সভায় উপস্থিত ছিলেন না উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা এসএম হাবিবুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক এবং সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মেহেদী মাসুদ চৌধুরী।
এই সভায় প্রধানঅতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তৃতা করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মেজর জেনারেল (অব.) অধ্যাপক ডাক্তার নাসির উদ্দিন।
২০১৮ সালে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হওয়ার আগে মেহেদী মাসুদ চৌধুরী এই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হওয়ার পর সেখানে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন সাবেক ইউপি সদস্য জিয়াউর রহমান ঢালী।
বুধবার বিকেলে ফুলসারা ইউনিয়নের সলুয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আয়োজনে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। দলের ইউনিয়ন কমিটির সভাপতি ইউপি সদস্য শের আলী সভায় সভাপতিত্ব করেন।
উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক কমিটির সদস্য প্রভাষক হারুন অর রশীদের পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি সহিদুল ইসলাম মিয়া, নির্বাহী কমিটির সদস্য মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সাত্তার, সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এসএম সাইফুর রহমান বাবুল, আশরাফুল আলম, নাছিমা খাতুন, পৌর কাউন্সিলর সিদ্দিকুর রহমান, সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা আব্দুস সালাম, জেলা পরিষদ সদস্য হবিবর রহমান হবি, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার ডা. নূর হোসেন, যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক শরিফুল ইসলাম, প্যানেল মেয়র আনিচুর রহমান আনিচ, স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক জিয়াউর রহমান রিন্টু প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সংসদ সদস্য বলেন, আগামী নির্বাচনে আপনাদের সঠিক নেতৃত্ব বেছে নিতে হবে। আশা করি এই ইউনিয়নে আপনারা সঠিক নেতৃত্ব বেছে নেবেন। না হলে আপনারাই সাফার করবেন। আপনারা দশকেজি চাল, ত্রিশ কেজিচাল, বয়স্কভাতা, বিধবাভাতা ঠিকমত পান না। যারা পান তাদের উৎকোচ দিতে হয়।
মতবিনিময় সভায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক উপস্থিত না থাকায় বক্তারা বিষয়টির সমালোচনা করেন।
এদিকে, মতবিনিময়সভা শেষ হওয়ার পর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ফুলসারা ইউপি চেয়ারম্যান মেহেদী মাসুদ চৌধুরী নিজের ফেসবুক ওয়ালে ৪০ মিনিটের ব্যবধানে ২টি স্ট্যাটাস দেন। প্রথম স্টাটাসে তিনি লেখেন, ‘‘আসসালামু আলাইকুম প্রান প্রিয় ইউনিয়ন বাসি আমার ইউনিয়নের সার্বিক উন্নয়নে জিনি দাবি করলেন কোন রকম সহায়তা করে থাকে এর একটা প্রমান দিলে রাজনিতি থেকে বিদায় নিবো, বক্তাদের বক্তব্যের বিচার প্রিয় ইউনিয়ন বাসির উপর ভার দিলাম।” এরপর তিনি স্ট্যাটাস দেন ‘‘সমস্ত অর্থ বরাদ্ব, ষোল/সতেরো অর্থ বৎসর’’। এরপর তিনি আরেকটি স্ট্যাটাস দেন ‘‘আমার স্কুল ভবনের কাজ কবে শুরু”।

আরও পড়ুন