চৌগাছায় ধর্ষণ মামলার আসামির আত্মহত্যা!

আপডেট: 07:09:02 02/03/2021



img

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি: চৌগাছায় টাকা ধার দেবার নাম করে নিজবাড়িতে ডেকে এনে এক গৃহবধূ (২৫) ধর্ষণ মামলার আসামি মিজানুর রহমান (৫৫) বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন।
তিনি উপজেলার নারায়ণপুর ইউনিয়নের বাদেখানপুর গ্রামের বাসিন্দা। স্থানীয় ইউপি সদস্য বাবুল হোসেন ও ইউসুফ আলী আত্মহত্যা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।
স্থানীয়রা জানায়, মঙ্গলবার সকালে বাড়ির পাশের মাঠে কীটনাশক পান করেন মিজানুর। তাকে উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী কোটচাঁদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানে ওয়াশ করার পর চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে ঢাকায় নেয়ার পথে বেলা বারটার দিকে ঝিনাইদহে তার মৃত্যু হয়। তবে ধর্ষণ মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা চৌগাছা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান জানান, বিষয়টি এখনো অফিসিয়ালি আমাদের জানানো হয়নি। তবে, শুনেছি তাকে কোটচাঁদপুর হাসপাতাল থেকে ঝিনাইদহ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে তার মৃত্যু হয়েছে এবং লাশ মর্গে রয়েছে।
তিনি বলেন, লাশের ময়নাতদন্ত ঝিনাইদহে হবে এবং আমাদের অফিসিয়ালি জানানোর কথা। বিকেল ৫টা ৩৮ মিনিটে স্থানীয় ইউপি সদস্য ইউসূফ আলী জানান, ঝিনাইদহ হাসপাতালের মর্গে মরদেহের ময়নাতদন্ত চলছে। ময়নাতদন্ত শেষে বাড়িতে এনে দাফন করা হবে।
গত ২৪ ফেব্রুয়ারি সকাল সাড়ে দশটার দিকে গ্রামের এক সন্তানের জননী গৃহবধূকে (২৫) টাকা ধার দেয়ার নামে বাড়িতে ডেকে তাকে ধর্ষণ করেন মিজানুর। পরে স্থানীয় এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর নেতৃত্বে মীমাংসার নামে বিচারে ওই নারীকে মারপিট করে পাঁচ হাজার টাকা হাতে দিয়ে তাড়িয়ে দেয়া হয়। পরে ওই নারী তার মায়ের সহায়তায় ২৫ ফেব্রুয়ারি (বৃহস্পতিবার) মামলা করেন।

আরও পড়ুন