ছাত্রলীগ সেক্রেটারির নামে অস্ত্র মামলা

আপডেট: 11:10:27 30/11/2019



img

আব্দুস সামাদ, সাতক্ষীরা : হত্যা ও ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত পিস্তল উদ্ধারের ঘটনায় সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাদিকুর রহমান সাদিকসহ চারজনের নামে মামলা করেছে পুলিশ।
শনিবার সাতক্ষীরা ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক হাফিজুর রহমান বাদী হয়ে সদর থানায় এ মামলা করেন। মামলা নম্বর ৮৮।
এ মামলার আসামিরা হলেন, সাতক্ষীরা শহরের মুনজিতপুরের সৈয়দ মোখলেছুর রহমানের ছেলে সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাদিকুর রহমান সাদিক, শ্যামনগরের মৃত আরশাদ আলী সরদারের ছেলে আজিজুল ইসলাম, শহরের রসুলপুর মেহেদীবাগের এসএম আনিসুর রহমানের ছেলে শামীম হাসান ও একই এলাকার আব্দুল বারেকের ছেলে আহম্মেদ বাবু।
এজাহারে বলা হয়েছে, সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাদিকুর রহমান সাদিকের কাছের লোক বলে পরিচিত মুনজিতপুরের দীপ আজাদ ও কালিগঞ্জের উজিরপুরের সাইফুল ইসলামকে কালিগঞ্জ থেকে ২৬ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় বৃহস্পতিবার গ্রেফতার করে পুলিশ।
তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত পিস্তলটি তারই কাছের লোক বলে পরিচিত মুনজিতপুরের আজিজুল ইসলামের কাছ থেকে শুক্রবার সকালে জব্দ করা হয়। এ সময় আটক করা হয় আজিজুল ইসলামকে।
এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে শহরের সঙ্গীতা মোড় থেকে এই চক্রের অপর সদস্য সামী হাসানকে আটক করে পুলিশ।
নিজের এক আত্মীয় জেলার বড় মাপের আওয়ামী লীগ নেতা ও জনপ্রতিনিধি হওয়ার সুবাদে সাদিক তার দলবল নিয়ে সশস্ত্র চাঁদাবাজি করতেন। আজিজুলের দেওয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী পুলিশ সাদিকসহ চারজনের নাম উল্লেখ করে ১৮৭৮ সালের অস্ত্র আইনের ১৯(এ) ধারায় সদর থানায় মামলা (নম্বর ৮৮) করেন।
সাতক্ষীরা ডিবি পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মহিদুল ইসলাম জানান, সাতক্ষীরা সদর থানায় ডিবি পুলিশ বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে মামলা করেছে।
জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাদিকুর রহমানের দেহরক্ষী হিসেবে পরিচিত শহরের মুনজিতপুরের দীপ আজাদ ও কালিগঞ্জের উজিরপুরের সাইফুল ইসলাম শনিবার ভোররাতে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন। তারা বিকাশের ২৬ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় পুলিশ হেফাজতে ছিলেন।

আরও পড়ুন