ছেলের হাতে হত্যার শিকার নারীর মরদেহ উদ্ধার

আপডেট: 10:23:54 23/02/2021



img

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার পোড়াদহ উত্তরপাড়ায় মাটি খুঁড়ে মমতাজ বেগম (৫৫) নামে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এক মাস আগে ওই নারী তার ছেলের হাতে খুন হয়েছিলেন।
আজ মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রাব্বী নামে আটক এক যুবকের স্বীকারোক্তি মতে বাড়ির পাশ থেকে তার মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। রাব্বী নিহত মমতাজ বেগমের ছেলে মুন্নার বন্ধু।
নিহত মমতাজ বেগম পোড়াদহ উত্তরপাড়ার ফজল হোসেনের স্ত্রী।
কুষ্টিয়া গোয়েন্দা পুলিশের ওসি আমিনুল ইসলাম জানান, মিরপুর থানায় মমতাজ নামে এক নারীর নিখোঁজ হওয়ার সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়। প্রায় একমাস আগে মমতাজ বেগমের জামাতা এই সাধারণ ডায়েরি করেন। তদন্তকালে মঙ্গলবার ডিবি পুলিশ রাব্বি নামে একজনকে আটক করে। রাব্বী নিখোঁজ মমতাজের ছেলে মুন্নার বন্ধু। জিজ্ঞাসাবাদে সে জানায় পারিবারিক ভাগবাটোয়ারা নিয়ে বিরোধের জের ধরে তার সহযোগিতায় মুন্না তার মাকে হত্যা করে। হত্যার সাথে মুন্নার চাচারাও জড়িত। তারা হত্যাকান্ডে সহযোগিতা করেছেন। এরপর বিকেলে রাব্বীকে নিয়ে মমতাজ বেগমের মরদেহ উদ্ধারে যায় পুলিশ। তার দেখানো মতে নিজ বাড়ির পাশের পুকুর পাড়ের মাটি খুড়ে মমতাজের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এরপর মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।
ওসি আরো জানান, মূল হত্যাকারী নিহত মমতাজের ছেলে মুন্না এখন পর্যন্ত পলাতক রয়েছে। তাকে আটকে অভিযান শুরু হয়েছে।

আরও পড়ুন