ঝিকরগাছায় রোদ-বৃষ্টিতে নষ্ট হচ্ছে ঘর নির্মাণসামগ্রী

আপডেট: 04:00:49 27/07/2020



img

জেসমিন সুলতানা, ঝিকরগাছা (যশোর) : ঝিকরগাছায় ‘জমি আছে ঘর নাই’ প্রকল্পের ঘর নির্মাণে ব্যপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।
গত ১৬ জুলাই উপজেলার মাগুরা ইউনিয়ন পরিষদে এক অনুষ্ঠানে উপকারভোগী ৪৩টি পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ‘জমি আছে ঘর নাই তার নিজ জমিতে গৃহ নির্মাণ’ প্রকল্পের এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের দুর্যোগ সহনীয় গৃহ নির্মাণ প্রকল্পের নির্মিত ঘর হস্তান্তর করা হয়েছিল। কিন্তু সুবিধাভোগী অধিকাংশ পরিবার এখনো নির্মিত ঘর পাননি।
বেশ কয়েকটি মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে শনিবার মাগুরা ইউনিয়নের ছোটকুলি গ্রামে মদিনা মিয়ার বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে, ঘর তৈরির উদ্দেশে তার বাড়ির উঠোনে প্রায় দুই মাস আগে ইট, বালি, খোয়া, কংক্রিটের পিলার, কাঠ, টিন ও দশ বস্তা সিমেন্ট রেখে যাওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে সিমেন্টগুলো জমাট বেঁধে গেছে। এছাড়া সমস্ত মালামাল রোদ-বৃষ্টিতে নষ্ট হচ্ছে।
মদিনা মিয়ার স্ত্রী মর্জিনা বেগম বলেন, ‘নসিমন গাড়িতে করে প্রায় দুই মাস আগে এসব মালামাল রেখে গেছে। কিন্তু তার পর ঘর বানাতে কেউ আসেনি। পুরনো ঘর ভেঙে ফেলায় বর্তমানে ছোট ছোট বাচ্চাদের নিয়ে খুব কষ্টে আছি।’
মদিনা মিয়া বলেন, ‘ঘর নিয়েও খুব বিপদে আছি। এখন মেম্বার, চেয়ারম্যানসহ যার কাছে যাচ্ছি সে বলছে, ওসব বিষয় তারা কিছুই জানে না।’
যোগাযোগ করে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাকের মোবাইল বন্ধ পাওয়া গেছে। তাই এই বিষয়ে তার বক্তব্য জানা যায়নি।
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শুভাগত বিশ্বাস বলেন, মাগুরা ইউনিয়নে যেসব ঘর নির্মাণ কাজ বাকি আছে ঈদের পূর্বেই সেগুলোর কাজ সম্পন্ন করে দেওয়া হবে।
সিমেন্ট নষ্ট হওয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রয়োজনে আবারো সিমেন্ট কিনে দেওয়া হবে।
দ্রুত এসব ঘর নির্মাণ করে উপকারভোগীদের কাছে হস্তান্তরের দাবি জানিয়েছেন, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান গিয়াসউদ্দিন।

আরও পড়ুন