তরুণী হত্যার অভিযোগ, স্বামী-শাশুড়ি আটক

আপডেট: 07:58:54 21/11/2019



img

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : যৌতুকের দাবিতে সাতক্ষীরার আশাশুনিতে স্বামী ও শাশুড়ি স্বপ্নারানি মণ্ডল (২০) নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার বড়দল ইউনিয়নের ডুমুরপোতা গ্রাম থেকে পুলিশ গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় স্বামী প্রশান্ত সরকার ও শাশুড়ি সবিতা সরকারকে আটক করেছে পুলিশ।
গৃহবধূর স্বপ্না একই উপজেলার খাজরা ইউনিয়নের ফটিকখালী গ্রামের পরিমল মণ্ডলের মেয়ে এবং ডুমুরপোতা গ্রামের মৃত সনাতন সরকারের ছেলে প্রশান্ত সরকারের স্ত্রী।
স্বপ্নার কাকা শ্যামলকুমার মণ্ডল বলছেন, যৌতুকের দাবিতে তার ভাইঝিকে প্রায়ই নির্যাতন করতো তার স্বামী প্রশান্ত ও শাশুড়ি সবিতা সরকার। এরই জের ধরে বুধবার রাতে তাকে মারপিট করে গুরুতর আহত করে ওই দুইজন। একপর্যায়ে বৃহস্পতিবার ভোরে স্বপ্না মারা গেলে পরে তার মুখে বিষ ঢেলে ‘আত্মহত্যা’ বলে প্রচার করা হয়।
স্বপ্নার গায়ে মারপিটের একাধিক চিহ্ন রয়েছে বলে দাবি করেন শ্যামল।
আশাশুনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুস সালাম জানান, ময়নাতদন্তের জন্য গৃহবধূর লাশ সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ইতিমধ্যে গৃহবধূর স্বামী প্রশান্ত সরকার ও শাশুড়ি সবিতা সরকারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে।

আরও পড়ুন