থ্রি-হুইলারে ট্রেনের ধাক্কা, ৫ শিশু হাসপাতালে

আপডেট: 02:32:52 21/10/2019



img
img
img

স্টাফ রিপোর্টার : আহত হলেও ভাগ্যের জোরে প্রাণে রক্ষা পেল পাঁচ শিশু শিক্ষার্থী ও তাদের বহনকারী থ্রি-হুইলার চালক।
যশোরের ঝিকরগাছায় বেনাপোলমুখী ঢাকা-বেনাপোল ট্রেনের ধাক্কায় এদের বহনকারি থ্রি-হুইলার উল্টে গেলেও প্রাণে রক্ষা পেয়েছে এরা।
আজ সকাল সাড়ে দশটায় ঝিকরগাছা উপজেলার বামনআলী গ্রামের রেল ক্রসিংয়ে দুর্ঘটনাটি ঘটে।
আহতদের যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তারা হলো, ইয়ামিন হাসান জিহাদ (৬), তাহসিন মাহমুদ (৪), মোস্তাকিম (৫), মিম (১১), লাবিবা (৭) এবং থ্রি-হুইলার চালক সুজনকান্তি (৪০)। এদের মধ্যে শিশু মিম ও চালক সুজনের অবস্থা গুরুতর।
ক্রসিংটিতে গেট অথবা গেটম্যান নেই বলে জানাচ্ছেন স্থানীয়রা।
আহত তাহসিনের বাবা মনির হোসেন জানান, আহতরা সবাই বামনআলী গ্রামে আইডিয়াল চাইন্ড অ্যাকাডেমির শিক্ষার্থী। তারা স্কুল ছুটির পর ওই থ্রি-হুইলারে চেপে বাড়ি ফিরছিল। সাড়ে দশটার দিকে বামনআলী রেলক্রসিংয়ের ওপর গিয়ে থ্রি-হুইলারের ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যায়। ওই সময়ই ট্রেনটি এসে পড়ে। ট্রেনের ধাক্কায় থ্রি-হুইলারটি ছিটকে পড়ে বাচ্চারা আহত হয়।
বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফারুক হোসেন বলেন, ‘খবর শুনে আমি ঝিকরগাছা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়েছিলাম। সেখানে কেউ ভর্তি নেই। আমি যশোর জেনারেল হাসপাতালের পথে রওয়ানা হয়েছি।’
যশোর জেনারেল হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের ডাক্তার তৌফিক আনোয়ার জানান, আহত মিম ও ড্রাইভার সুজনের অবস্থা গুরুতর। তাদের সিটি স্ক্যান করতে দেওয়া হয়েছে। ২৪ ঘণ্টা পার না হলে কিছু বলা যাবে না।
ঝিকরগাছা থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক জানান, দুর্ঘটনার সময় ট্রেনটি দাঁড়িয়ে যায়। ট্রেনচালক নেমে এসে আহতদের গাড়িতে তুলে দেন। গ্রামের ভেতর দিয়ে ট্রেনের লাইন গেছে। গেটম্যান নেই। সেই কারণে চালকদের সতর্ক থাকা দরকার।

আরও পড়ুন