দশটি রেলইঞ্জিন উপহার দিলো ভারত

আপডেট: 09:57:57 27/07/2020



img

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি : ঈদ উপলক্ষে বাংলাদেশকে উপহার দেওয়া ভারতের দশটি ব্রডগেজ রেলইঞ্জিন (লোকোমোটিভ) আজ বিকেলে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনায় এসে পৌঁছেছে।
এ ইঞ্জিনগুলো ভারতীয় রেলকর্তৃপক্ষ বাংলাদেশের দর্শনা ও ভারতের গেদে ইন্টারকানেকশন পয়েন্টের মাধ্যমে বাংলাদেশ রেল কর্তৃপক্ষের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করেছে।
বাংলাদেশের রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন রেলভবন থেকে এবং ভারতের রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল দিল্লি থেকে অনলাইনে যুক্ত হয়ে এই গ্রহণ-হস্তান্তর কাজ করেন।
এদিন বিকেল সাড়ে চারটার সময় লোকোমোটিভগুলো নানা রঙের ফুল দিয়ে বর্ণিল সাজে ভারত থেকে বাংলাদেশের দর্শনা সীমান্তের জয়নগরে প্রবেশ করে। এখানে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা থার্মাল স্ক্যানার দিয়ে ভারতীয় রেলচালকসহ অন্যদের করোনা পরীক্ষা করেন। এখানে আয়োজিত অনুষ্ঠানে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজগার টগর, বাংলাদেশ রেলওয়ের জিএম (পশ্চিম) মিহিরকান্তি গুহ, অতিরিক্ত মহাপরিচালক (রেলভবন) মনজুর উল আলম চৌধুরী, প্রধান প্রকৌশলী আল ফাত্তাহ মাসউদুর রহমান, প্রধান যন্ত্র প্রকৌশলী মো. কুদরাত-ই খোদা, ডিভিশনাল রেলওয়ে ম্যানেজার (পাকশী) মো. আসাদুল হক, চিফ সুপারিনটেনডেন্ট মো. শহিদুল ইসলাম, চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার, পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম, দামুড়হুদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলি মুনছুর বাবু, দর্শনা পৌরসভার মেয়র মতিয়ার রহমান উপস্থিত ছিলেন।
অপরদিকে, ছয় সদস্যের ভারতীয় প্রতিনিধি দলের পক্ষে কলকাতা ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (ইঞ্জিন) অশোককুমার বিশ্বাসসহ পাঁচজন নেতৃত্ব দেন।
বাংলাদেশের ৭২ শতাংশ লোকোমোটিভের উপযোগিতা ইতিমধ্যে শেষ হয়ে গেছে। সেই সংকট কাটাতে বাংলাদেশ রেলওয়ে ভারত থেকে গেল বছর লাকোমোটিভ ভাড়া করতে চেয়েছিল। কিন্তু ভারত ভাড়ায় নয়, উপহার হিসেবে বাংলাদেশকে এগুলো প্রদান করলো।

আরও পড়ুন