দুর্নীতি : লোহাগড়ায় স্কুল কর্তৃপক্ষকে নোটিস

আপডেট: 06:00:41 24/11/2020



img

নড়াইল প্রতিনিধি : অফিস সহকারী কাম কস্পিউটার অপারেটর নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগে নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার সরস্বতী একাডেমী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি, প্রধান শিক্ষক ও দুই অভিভাবক সদস্যকে যশোর শিক্ষা বোর্ড কারণ দর্শাতে বলেছে।
গত ১৫ নভেম্বর বোর্ডের বিদ্যালয় পরিদর্শক ড. বিশ্বাস শাহীন আহম্মদ স্বাক্ষরিত নোটিসে এক সপ্তাহের মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছে।
নোটিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সরস্বতী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর নিয়োগে সঞ্জয় বৈদ্য নামে এক প্রার্থীর কাছ থেকে ছয় লাখ ৬৭ হাজার টাকা এবং অভিযোগকারী কাজী মো. নূর আলমের কাছ থেকে চার লাখ টাকা ঘুষ নেওয়ার অভিযোগের সত্যতা প্রাথমিক তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। সেই কারণে বিদ্যালয়ের সভাপতি আল ইমরান শেখ এবং অভিভাবক সদস্য তাহাজ্জত চৌধুরী ও কাজী ওবায়দুর রহমানকে তাদের পদ থেকে কেন অব্যাহতি দেওয়া হবে না, তার জবাব দিতে হবে।
এ ছাড়া ওই নিয়োগে প্রধান শিক্ষক মো. আরিফউদ্দৌলার বিরুদ্ধে ৫০ হাজার টাকা ঘুষ-দুর্নীতির অভিযোগের সত্যতা প্রমাণিত হওয়ায় তার বিরুদ্ধেও কেন আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে না- তার জবাব দিতেও বলা হয়েছে।
সরস্বতী একাডেমীর সভাপতি আল ইমরান শেখ ও প্রধান শিক্ষক মো. আরিফউদ্দৌলা কারণ দর্শানোর নোটিস পাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন। তবে তারা নিজেদের নির্দোষ দাবি করেন।

আরও পড়ুন