নগ্ন অবস্থায় দৌঁড়ে জীবন বাঁচালেন সাবেক মেম্বার

আপডেট: 02:12:56 18/09/2020



img

শার্শা (যশোর) প্রতিনিধি : অসামাজিক কার্যকলাপ করতে গিয়ে গ্রামবাসীর কাছে ধরা খেয়ে গণধোলাইয়ের শিকার হয়েছেন যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার শংকরপুর ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্য ইজান আলী। এসময় জীবন বাঁচাতে বিবস্ত্র অবস্থায় পুকুরের পানিতে ঝাঁপ দেন ওই সাবেক ইউপি সদস্য।
বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শংকরপুর নায়ড়া তেঁতুলতলা এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।
ইজান আলী ওই ইউনিয়নের চার নম্বর ওয়ার্ডের নায়ড়া গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য।
এলাকাবাসী জানান, এর আগেও সাবেক এই ইউপি সদস্য ইজানকে নিয়ে পরকীয়ার অভিযোগ করেছিলেন গ্রামবাসী। চাল চুরি, বাল্যবিয়ে থেকে নানা রকমের অপকর্মের অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে। তার মধ্যে মারামারি, গৃহবধূ ধর্ষণের বিচার ও শালিস বাণিজ্যও রয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সন্ধ্যা অনুমানিক সাতটার দিকে একই গ্রামের এক গৃহবধূ (৩২) বাড়ি থেকে বের হয়ে পেছনের বাঁশবাগানে যান নায়ড়া গ্রামের মোহাম্মাদ দেড়ির ছেলে সাবেক ইউপি সদস্য  ইজানের (৪৬) সঙ্গে দেখা করতে। সেখানে তারা শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হন। টের পেয়ে স্হানীয়রা তাদেরকে হাতেনাতে ধরে ধোলাই দেয়ন। জীবন বাঁচাতে উলঙ্গ অবস্থায় দুইজনই লাফ দেন পাশের একটি পুকুরে। পুকুর পাড়ি দিয়ে মাঠ ধরে দৌঁড়ে পালিয়ে যান ইজান।
তবে সাবেক ইউপি সদস্য ইজান তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ 'মিথ্যা' বলে দাবি করেন। বলেন, 'সামনে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে একটি কুচক্রি মহল আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে। আমার সাথে যেখানে ধস্তাধস্তি হয়েছে, সেই স্পটে কোন মহিলা ছিল না। ওই গৃহবধূর সাথে আমার সারাদিন দেখাই হয়নি। আমাকে কি কোনো ঘরের মধ্যে আটকে রেখেছিল?'
'আমি আমার পুরনো বাড়ির পাশ দিয়ে ঘের থেকে বাসায় আসছিলাম। আচমকা আমার ওপর হামলা করলো কিছু লোক।'
এ ব্যাপারে বাঁকড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ রিপন বালা বলেন, 'বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে এ ব্যাপারে কোনো অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেব।'

আরও পড়ুন