নিলুর ক্ষেতে দশ ফুট লম্বা চিচিংগা

আপডেট: 04:49:34 28/07/2020



img

এস এম আলাউদ্দিন সোহাগ, পাইকগাছা (খুলনা) : পাইকগাছায় একটি ক্ষেতের চিচিংগা দশ ফুট লম্বা হয়েছে। এতে এলাকায় ব্যাপক সাড়া পড়েছে।
ভারতের উন্নত জাতের দশ ফুট লম্বা চিচিংগা বা কুশি দেখতে অনেকে ক্ষেতে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে নিলু সরদার নামে ওই চাষির চিচিংগা ক্ষেত পরিদর্শন করেছেন উপজেলা কৃষি অফিসার।
নিলু সরদার পেশায় ভ্যানচালক। ভ্যান চালানোর পাশাপাশি দিনমজুরি করে কোন রকমে সংসার চলে তার। নিজের কোনো জমি নেই, ঘর বাঁধার জায়গা নেই। পাইকগাছার সরল গ্রামের সুরঞ্জন চক্রবর্তী নামে এক ব্যক্তি নিলুকে তার বাড়িতে থাকার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন।
কাজের অবসরে মালিক সুরঞ্জনের তিন শতক জমিতে চিচিংগা বা কুশি ক্ষেত তৈরি করেছেন নিলু সরদার।
কৃষক নিলু ও তার স্ত্রী রুখুমালা জানান, ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে এই চিচিংগার বীজ সংগ্রহ করে এনেছে। কুড়িটি বীজ আনা হয়েছিল। ওই বীজ তিনি নিজে লাগিছেন এবং পাশের কৃষকদের দিয়েছেন। বৈশাখে বীজ রোপণ করেছিলেন। এখন ক্ষেতে চিচিংগা ধরেছে। ছোট সাদা সাদা ফুলে ভরে গেছে ক্ষেত। জাল, বাঁশ দিয়ে মাচা করেছেন।  ক্ষেতের সবচেয়ে বড় চিচিংগাটি প্রায় দশ ফুট লম্বা হয়েছে। আরো বড় হবে বলে তাদের ধারণা। ক্ষেতের আরো তিনটা কুশি দুই তিন ফুট লম্বা হয়েছে।
দম্পতি জানান, সাইক্লোন আম্পানের সময় কয়েক দিনের টানা বৃষ্টিতে ক্ষেতের বেশ কিছুটা ক্ষতি হয়েছে। সে সময় প্রায় সাত ফুট লম্বা একটি কুশি নষ্ট হয়ে যায়।
নিজের জমি না থাকা সত্তে¡ও অন্যের জমিতে আবাদ করে নজরকাড়া চিচিংগা উৎপাদন করায় এলাকার লোক বাহবা দিচ্ছেন নিলু সরদারকে।
কৃষি বিভাগ জানায়, চিচিংগা বা কুশি হচ্ছে ঝিঙের মতো লম্বা বা কখনো খানিকটা পেঁচানো দেখতে হয়। হালকা সবুজ বা গাঢ় সবুজ ও সাদা ডোরাকাটা উভয় ধরনের হয়ে থাকে। লম্বায় এই সবজি ১৮-২৫ ইঞ্চি হয়। কুশি গ্রীস্মকালীন সবজি। বাংলাদেশের সব এলাকায় এ সবজির চাষ হয়। এলাকাভেদে এটি চিচিংগা, কুশি ও কাইডা নামে পরিচিত। দক্ষিণাঞ্চলে এটি ‘কুশি’ নামে সমধিক পরিচিত।
কুশি শতভাগ ভক্ষণযোগ্য। এতে ৯৫ ভাগ পানি আছে। মূলত তরকারি হিসেবে ব্যবহৃত হলেও এর অনেক ওষধি গুণ আছে। কুশি বিভিন্ন ধরনের চর্ম, কৃমি, অরুচিসহ বিভিন্ন রোগের প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করে। আয়ুর্বেদশাস্ত্রে এর নাম ‘দধিপুষ্প’।
পাইকগাছায় কর্মরত কৃষিবিদ এ এইচ এম জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘নিলু নামে ওই চাষির ক্ষেত পরিদর্শন করেছি। ক্ষেতটিতে ভারতের উন্নত জাতের চিচিংগার চাষ করা হয়েছে। তাকে বীজ উৎপাদন করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। জাতটি সংরক্ষণে উদ্যোগ নিলে এটি দেশে চাষ করা সম্ভব।’

আরও পড়ুন