নড়াইলে ইউপি মেম্বার খুন, কৃষকলীগ নেতা গুরুতর

আপডেট: 10:43:05 27/05/2020



img

নড়াইল প্রতিনিধি : নড়াইলের নড়াগাতি থানার কলাবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের তিন নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার কাইয়ুম সিকদারকে (৪৮) কুপিয়ে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষরা।
নিহত কাইয়ুম কলাবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতা ছিলেন। এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও পূর্বশত্রুতার জের ধরে তাকে হত্যা করা হয় বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।
স্থানীয়রা বলছেন, মঙ্গলবার রাত নয়টার দিকে নড়াগাতি থানার কালিনগর এলাকায় ওত পেতে থাকা প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা কাইয়ুমের মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে। তারা সেখানে কাইয়ুমকে কুপিয়ে পালিয়ে যায়। গুরুতর অবস্থায় কাইয়ুমকে কালিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হলে তার মৃত্যু হয়। তার হাত, পা, মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে কোপানো হয়।
ঘটনার সময় নড়াগাতি থানা কৃষকলীগের সভাপতি কলাবাড়িয়া গ্রামের আবুল হাসনাত মোল্যা (৪০) এবং একই গ্রামের আপন দুই ভাই মতিয়ার মল্লিক (৪২) ও সজীব মল্লিককে (২৮) কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে প্রতিপক্ষরা।
নিহত কাইয়ুম নড়াগাতির বিলাফর গ্রামের হাসু সিকদারের ছেলে।
পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, দুটি মোটরসাইকেলযোগে নড়াইলের কালিয়া উপজেলা সদর থেকে বাড়িতে ফেরার পথে কালিনগর এলাকায় ওত পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা পথরোধ করে কাইয়ুম সিকদারসহ চারজনকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। কোপের শিকার অন্যরা হলেন, কৃষকলীগের নেতা আবুল হাসনাত মোল্যা, মতিয়ার ও সজীব মল্লিক। শেষোক্ত তিনজনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে আবুল হাসনাত মোল্যার অবস্থা গুরুতর বলে জানিয়েছেন তার স্বজন ও চিকিৎসকেরা।
নড়াগাতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রোখসানা খানম জানান, এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে এলাকা শান্ত আছে। হত্যাকারীদের ধরার চেষ্টা চলছে। ঘটনার ব্যাপারে একনো থানায় মামলা হয়নি ।
নড়াইলের সহকারী পুলিশ সুপার (কালিয়া অঞ্চল) রিপনচন্দ্র সরকার বলেন, ‘এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এই হতাহতের ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। এ ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করে ধরার জন্য অভিযান চলছে।’

আরও পড়ুন