পুষ্টি স্বাস্থ্য শিক্ষায় ২৮ নারী

আপডেট: 01:53:47 15/09/2020



img
img

তারেক মাহমুদ, কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) : সোমা দেবনাথ একজন গৃহবধূ। অন্যান্য কাজের পাশাপশি বাড়ির আঙিনায় সবজি চাষ, হাঁস-মুরগি পালনসহ নানা কাজ করেন। তার মতো ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার দুটি ইউনিয়নের ৪০০ নারী বাড়ির আঙিনায় নিরাপদ খাদ্য উৎপাদনে কাজ করছেন। এছাড়া এসব নারী পুষ্টিগুণ বজায় রেখে রান্নার কৌশল নিয়ে কাজ করেন। কালীগঞ্জ উপজেলার নিয়ামতপুর ও রায়গ্রাম ইউনিয়নের ১৩টি গ্রামের ২৮ জন এলএসপি (লোকাল সার্ভিস প্রোভাইডার) প্রায় ৩৮৮ জন হতদরিদ্র নারীর মাঝে পুষ্টি ও স্বাস্থ্য সুরক্ষায় সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য কাজ করছেন। দুই বছর হলো এভাবে তারা নিরাপদ খাদ্য উৎপাদনে ভূমিকা রাখছেন।
এই এলএসপিরা যে নিজেরা সচ্ছল- তা কিন্তু না। নানা প্রতিকূলতার মধ্যেও এলএসপি সদস্যরা গ্রামের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজে নিজেদের সম্পৃক্ত রেখেছেন। পুষ্টি-স্বাস্থ্য-নিরাপদ খাদ্য, পরিচ্ছন্নতা বিষয়ক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে নিজেদের পরিবর্তনে এগিয়ে চলেছেন। নিজেদের বাড়ির কাজের পাশাপাশি সমাজ উন্নয়ন এবং নারীদের স্বাস্থ্য, পুষ্টি সচেতনতামূলক বিভিন্ন বিষয়ে উঠোনবৈঠকের মাধ্যমে তাদের অর্জিত জ্ঞান পিছিয়ে পড়া নারীদের সঙ্গে ভাগাভাগি করেন। তাদের দেখাদেখি এলাকার অন্য নারীদের মাঝে স্বাস্থ্য সচেতনা, খাদ্যের পুষ্টি রক্ষা, বাড়ির আঙিনায় নিরাপদ সবজি উৎপাদন এবং ওষধি গাছ লাগাচ্ছেন। এসব কাজে সার্বিক সহযোগিতা করছে জাপানভিত্তিক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ল্ড’। সংস্থাটির ডেভলপমেন্ট প্রকল্পের আওতায় নিজেরা আলোকিত হয়ে অন্যের মাঝে আলো ছড়িয়ে দেওয়ার ব্রত নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন এসব নারী।
উপজেলার আড়ুয়াশলুয়া গ্রামের শিখা খাতুন। পড়াশোনার পাশাপাশি লোকাল সার্ভিস প্রোভাইডার হিসেবে কাজ করেন। মাসে দুইদিন গ্রামের হতদরিদ্র নারীদের নিয়ে উঠোনবৈঠক করেন। বৈঠকে খাদ্যের পুষ্টি রক্ষা করা, নারীদের স্বাস্থ্যবিষয়ক, সমবায় গঠন, সঞ্চয় করা, বাড়ির আঙিনায় সবজি চাষসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করা হয়।
এই বিষয়ে সংস্থার ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর সোহেল রানা বলছেন, ‘সমাজের পিছিয়ে পড়া নারীদের পুষ্টি উন্নয়নে হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ল্ড-এর পরিচালনায় চলমান প্রজেক্ট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। আমরা বিশ্বাস করি, এলএসপিরা তাদের আন্তরিকতা ও অর্জিত জ্ঞান দিয়ে নারীদের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে অর্জিত জ্ঞান যুগ যুগ ধরে পরম্পরায় চলমান থাকবে।’

আরও পড়ুন