প্রকৌশলীকে মারপিট, আ.লীগ নেতা গ্রেফতার

আপডেট: 02:00:55 19/05/2020



img

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি : ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডুতে পুলিশ গ্রেফতার করেছে জেলা আওয়ামী লীগ নেতা ও ফলসি ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুর রহমানকে। তিনি উপজেলা পরিষদের প্রকৌশলী রওশন হাবিবকে মারপিট করার মামলায় অভিযুক্ত।
ঠিকাদারি কাজের বিল দেওয়াকে কেন্দ্র করে চেয়ারম্যান তাকে পেটান বলে অভিযোগ।
এ ঘটনায় সোমবার বিকেলে হরিণাকুণ্ডু থানায় উপজেলা প্রকৌশলী রওশন হাবিব মামলা করেন। পরে পুলিশ সন্ধ্যার দিকে হরিনাকুণ্ডু এলাকায় অভিযান চালিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুর রহমানকে গ্রেফতার করে। তিনি উপজেলার ফলসী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।
ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান জানান, সোমবার বিকেলে হরিণাকুণ্ডু উপজেলা পরিষদের ভেতরে স্থানীয় ফলসি ইউপি চেয়ারম্যান ও ঠিকাদার ফজলুর রহমান একটি ঠিকাদারি কাজের বিল নিয়ে প্রকৌশলী রওশন হাবিবের সঙ্গে বাদানুবাদে লিপ্ত হন। এক পর্যায়ে তিনি ওই প্রকৌশলীকে অফিসের মধ্যে ফেলে মারপিট করেন বলে অভিযোগ করা হয়েছে।
এ ঘটনার পর উপজেলা প্রকৌশলী রওশন হাবিব মামলা করেন। পরে পুলিশ সন্ধ্যার দিকে অভিযুক্ত চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করে।
উপজেলা প্রকৌশলী রওশন হাবিব জানান, উপজেলায় পাঁচটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কাজ হচ্ছে। এ জন্য দুই কোটি ২৩ লাখ টাকার বিল এসেছে। ঈদ সামনে রেখে সব ঠিকাদারকেই কম-বেশি বিল পরিশোধ করা হচ্ছে। এখন ফান্ডে ১৬ লাখ টাকা আছে। ফজলু চেয়ারম্যান একাই ১৬ লাখ টাকা নিতে চান।
প্রকৌশলী রওশন হাবিবের ভাষ্য, ১৬ লাখ টাকা তিনি ঠিকাদার কবির, আলাউদ্দীন এবং ফজলুর রহমানের মাঝে ভাগ করে দিতে চেয়েছিলেন। এ নিয়ে ফজলু চেয়ারম্যান তার ওপর ক্ষিপ্ত হন। এক পর্যায়ে চেয়ারম্যান সরকারি কাজে বাধা দেন ও তাকে অফিসের মধ্যে ধাক্কা দিয়ে ফেলে মারতে তেড়ে আসেন।
তবে গ্রেফতার অভিযুক্ত চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান মারপিটের কথা অস্বীকার করে জানান, বিল নিতে গেলে উপজেলা প্রকৌশলী তার কাছে ঘুষ দাবি করেন। এ জন্য তার সঙ্গে তর্ক-বিতর্ক হয়।

আরও পড়ুন