ভালো ইট-বালি ব্যবহারের শর্তে ফের রাস্তার কাজ শুরু

আপডেট: 03:30:12 15/02/2020



img

তারেক মাহমুদ, কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) : ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে নিম্নমানের ইট-বালি দিয়ে নির্মাণের অভিযোগে বন্ধ হওয়া সেই রাস্তার কাজ আবার শুরু হয়েছে।
সম্প্রতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুবর্ণারানী সাহা অভিযোগের তদন্ত করে কাজটি বন্ধ করে দেন। ভুল স্বীকার করায় ওই আবারো কাজ করার অনুমতি পায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। শনিবার রাস্তাটির কাজ নতুন করে উদ্বোধন করেন কালীগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ হেল আল মাসুম।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় ২০১৯-২০ অর্থবছরে বাস্তবায়নের জন্য গ্রামীণ রাস্তাসমূহ টেকসইকরণের লক্ষ্যে কয়েকটি রাস্তায় হেরিং বন্ড (এইচবিবি) কাজ শুরু হয়। এরমধ্যে উপজেলার জামাল ইউনিয়নের বড় ডাউটি পিচের রাস্তা থেকে নাকোবাড়িয়া অভিমুখে ৫০০ মিটার এবং কোলা ইউনিয়নের সড়াবাড়িয়া পিচের রাস্তা থেকে আরব আলীর বাড়ি পর্যন্ত আরো ৫০০ মিটারসহ মোট এক কিলোমিটার রাস্তা তৈরির কাজ পায় ঝিনাইদহের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স কাজী মাহবুবুর রহমান। এই রাস্তাটির নির্মাণ খরচ ধরা হয় ৫২ লাখ ১৩ হাজার ৬০০ টাকা।
গত সপ্তাহে এই রাস্তাটির কাজ শুরু করে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। কিন্তু এলাকাবাসী অভিযোগ করেন, নিম্নমানের ইট আর বালি দিয়ে রাস্তা তৈরি করা হচ্ছে। এরকম অভিযোগের সত্যতা পেয়ে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুবর্ণারানী সাহা, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ হেল আল মাসুম পরিদর্শনে যান। তারা তখনই রাস্তার কাজ বন্ধ করার নির্দেশ দেন। তারা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে মানসম্মত ইট-বালি ব্যবহার করলেই কেবল কাজ করা যাবে বলে জানিয়ে দেন।
প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা বলেন, ‘শনিবার ভালো মানের ইট আর বালি আনায় রাস্তার কাজ করার অনুমতি দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। আমি নিজে গিয়ে ইট ও বালি পরীক্ষা করেছি।’

আরও পড়ুন