মণিরামপুরে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ

আপডেট: 04:39:14 16/02/2020



img

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি : মণিরামপুরে ৩৫ বছর বয়সী এক গৃহবধূ ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ করা হচ্ছে।
শনিবার দিবাগত গভীররাতে উপজেলার একটি আশ্রয়ণ প্রকল্পের কাছে ওই নারীকে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ। ভিকটিমকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
খবর পেয়ে রোববার সকালে মণিরামপুর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম ও ইনসপেক্টর (তদন্ত) শিকদার মতিয়ার রহমান ঘটনাস্থলে যান।
হাসপাতালে ভর্তি ওই নারী জানান, তিনি আগে বৃদ্ধা মায়ের সঙ্গে একটি আশ্রয়ণ প্রকল্পে থাকতেন। বিয়ে হওয়ার পর স্বামীর সঙ্গে ভারতে চলে যান। সম্প্রতি স্বামীকে ভারতে রেখে তিনি মায়ের কাছে বেড়াতে আসেন। শনিবার রাত দুইটার দিকে বাইরে থেকে ঘরে ফিরছিলেন তিনি। ওই সময় ওত পেতে থাকা গ্রামের হাবিবুর ও তার এক সহযোগী জোর করে তাকে তুলে নিয়ে পাশের বাঁশবাগানে ধর্ষণ করে। পরে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে ভোরে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।
তবে ধর্ষণের বিষয়ে আশ্রয়ণ প্রকল্পের কেউ কিছু জানেন না বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। এমনকি ওই নারীর মাও এই বিষয়ে কিছু বলতে পারেননি।
আশ্রয়ণ প্রকল্পের সভাপতি ও বাসিন্দা মনোয়ারা খাতুন বলেন, ‘ওই নারীর বৃদ্ধা মা এই প্রকল্পের বাসিন্দা। সে (ওই নারী) স্বামী ও দুই মেয়ে নিয়ে ভারতে থাকে। মাঝেমধ্যে সে গ্রামে আসে। দুই মাস আগে সে এখানে এসেছে। আব্দুর রাজ্জাক নামে তার এক দুলাভাইয়ের কাছে কিছু টাকা পেতো সে। লোকজন ধরে সেই টাকা আদায় করে কয়েকদিন আগে আবার হাবিবুরকে দিয়েছে। শনিবার বিকেলে যশোরে ভাইয়ের বাসায় যাচ্ছে বলে বাড়ি থেকে বের হয় সে। এরপর রোববার সকালে পুলিশ আসলে আমরা ধর্ষণের বিষয়টি শুনি।’
স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদ বলেন, ‘চেয়ারম্যানের মাধ্যমে খবর পেয়ে দুপুরে আমি আশ্রয়ণ প্রকল্পে গিয়েছি। প্রকল্পের কেউ এই বিষয়ে কিছু বলতে পারেনি।’
যশোর জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আরিফ আহমেদ জানান, রোববার ভোর ছয়টার দিকে ধর্ষণের অভিযোগ নিয়ে আসা এক নারীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিজ উদ্যোগে চিকিৎসকরা আলামত সংগ্রহ করেছেন। পুলিশ চাইলে রিপোর্ট দেওয়া হবে।
মণিরামপুর থানার ইনসপেক্টর (তদন্ত) শিকদার মতিয়ার রহমান বলেন, খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে যান। ওই নারী যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি আছেন। এই ঘটনায় এখনো থানায় মামলা হয়নি। ভিকটিমের স্বজনদের থানায় আসতে বলা হয়েছে।

আরও পড়ুন