মণিরামপুরে তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ

আপডেট: 06:57:19 26/11/2020



img

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি: যশোরের মণিরামপুরে দুই যুবকের বিরুদ্ধে ১৬ বছরের এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ।
এই ঘটনায় কিশোরীর খালা বাদী হয়ে বুধবার (২৫ নভেম্বর) মধ্যরাতে মণিরামপুর থানায় মামলা করেছেন।
মণিরামপুর থানার ইনসপেক্টর (তদন্ত) শিকদার মতিয়ার রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আসামিদের ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।  
অভিযুক্ত দুই যুবক হলেন মণিরামপুর উপজেলার এড়েন্দা বিলপাড়া এলাকার আজিজুর রহমানের ছেলে বাবু (৩০) এবং যশোর সদর উপজেলার মণ্ডলগাতী গ্রামের মোমিনুর রহমান (৩৫)। মোমিনুর মণিরামপুরের এড়েন্দা পশ্চিমপাড়ায় ঘরজামাই থাকেন।  
ধর্ষণের শিকার কিশোরীর মা ইটভাটা শ্রমিক। মেয়েটি এড়েন্দা গ্রামে খালার সাথে থাকে। কয়েক বছর আগে তার বাবা মারা যান।
থানায় দায়ের করা মামলা সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার (২৩ নভেম্বর) বিকেলে ওই কিশোরী যশোরের দিকে যায়। সন্ধ্যার পর সদর উপজেলার মণ্ডলগাতী গ্রাম থেকে সে বাবু ও মোমিনুরের সাথে মোটরসাইকেলে করে বাড়ি ফিরছিল। পথিমধ্যে মোটরসাইকেল থামিয়ে বাবু তাকে এড়েন্দা কালিচরণের কলাবাগানে নিয়ে ধর্ষণ করেন। এরপর তাকে ধর্ষণ করেন মোমিনুর। এসময় আসামিরা তার পরনের জামাকাপড় ছিঁড়ে ফেলে। পরে রাত সাড়ে সাতটার দিকে কিশোরী বাড়ি এসে তার খালাকে ঘটনা খুলে বলে।
আসামিরা কিশোরীর ওড়না দিয়ে তার হাত পা বেঁধে মুখে কাপড় ঢুকিয়ে দিয়ে ধর্ষণ করে বলে দাবি করেছেন মামলার বাদী।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মণিরামপুর থানার ইনসপেক্টর (তদন্ত) শিকদার মতিয়ার রহমান বলেন, সোমবার রাতে ঘটনাটি ঘটার পর বুধবার (২৫ নভেম্বর) ভিকটিমকে নিয়ে তার স্বজনরা যশোর কোতয়ালি থানায় যান। কোতয়ালি পুলিশ আমাদের বিষয়টি জানান। আমরা রাতে ভিকটিমকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসি। রাতেই ধর্ষণ মামলা রেকর্ড হয়েছে। আসামি গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
মণিরামপুরের স্থানীয় সাংবাদিকরা জানান, ওই তরুণীর বাবা মারা যাওয়ার পর তার মা ইটভাটায় কাজ নেন। মেয়েটি তার খালার কাছে থাকতো। মাঝেমধ্যে মায়ের কাছে যায়। মা-বাবা কেউ কাছে না থাকায় মেয়েটি এলোমেলো চলাফেরা শুরু করে।

আরও পড়ুন