মণিরামপুরে নিজ কাকার বাড়িতে তাণ্ডব

আপডেট: 09:53:16 11/09/2020



img

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি : মণিরামপুরে বিরোধপূর্ণ দশ শতক জমি নিয়ে দ্বন্দ্বে আপন ছোট কাকার বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও মারপিটের অভিযোগ করা হচ্ছে ভাইপোর বিরুদ্ধে। ঘটনার সময় মুখোশধারী সন্ত্রাসী দিয়ে কাকা-কাকিকে মেরে আহত করার অভিযোগও রয়েছে।
প্রতিকার চেয়ে এই ঘটনায় থানায় অভিযোগ করেছে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার।
বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার পোড়াডাঙ্গা গ্রামে এঘটনা ঘটলেও এখনো মামলা না হওয়ায় পরিবারটি ভীতি ও শঙ্কায় রয়েছে।
পোড়াডাঙ্গা গ্রামের মৃত চুনিলাল মজুমদারের ছেলে বিরামচন্দ্র বলেন, ‘আমরা ছয় ভাই। বাবার কাছ থেকে পাওয়া দশ শতক জমি নিয়ে আমার ছোটভাই চিত্তরঞ্জন মজুমদারের সাথে বড় ভাই মৃত সুনীতি মজুমদারের ছেলে চিন্ময় মজুমদারের বিরোধ চলছে; যা নিয়ে আদালতে মামলা করেছে চিন্ময়। বিরোধপূর্ণ জমিতে বসতঘর রয়েছে ছোট ভাই চিত্তরঞ্জনের। গত বুধবার আদালত থেকে ওই জমির ওপর ১৪৪ ধারার আদেশ এনে থানায় দেয় চিন্ময়। পরের দিন বৃহস্পতিবার ভোরে ৩৫-৪০ জন মুখোশধারী লোক এনে ওই বাড়িতে হামলা করে সে। সেই সময় সন্ত্রাসীরা চিত্তরঞ্জনের বসতঘর ভাঙচুর করে; ভিটের গাছ কেটে ফেলে। একপর্যায়ে তারা চিত্তরঞ্জন ও তার স্ত্রী বিথীকারানীকে মারপিট করে।’
বিরামচন্দ্র আরো বলেন, হামলাকারীরা থাকা অবস্থায় পুলিশ ১৪৪ ধারার আদেশ জারি করতে আসে। পরে পুলিশ দেখে তারা পালিয়ে যায়। এই ঘটনায় বিথীকা থানায় অভিযোগ করেছেন।
অভিযুক্ত চিন্ময় মজুমদার যশোর শহরের বেজপাড়া এলাকার বাসিন্দা। ফোন নম্বর না পাওয়ায় এই ব্যাপারে তার মন্তব্য জানা যায়নি।
মণিরামপুর থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই দেবাশীষ বিশ্বাস বলেন, ওই ঘটনার পর দুইবার পুলিশ ঘটনাস্থলে গেছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। এখনো থানায় মামলা হয়নি।

আরও পড়ুন