মহাবিপদ সংকেত

আপডেট: 08:04:53 09/11/2019



img
img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’-এর কারণে মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে দশ নম্বর মহাবিপদ সংকেত এবং চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরকে নয় নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া কার্যালয়। 
আজ শনিবার সকাল সোয়া নয়টায় ঢাকার আগারগাঁওয়ের আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মো. আফতাব উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি আরো বলেন, ‘এর পাশাপাশি কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতকে চার নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।’
আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, এরই মধ্যে গতিবেগ কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’-এর। গতকাল সন্ধ্যায় গতিবেগ ঘণ্টায় ১২৫ কিলোমিটার ছিল, এখন সেটি ১৩০ কিলোমিটারে গিয়ে ঠেকেছে। দমকা বা ঝড়ো হাওয়ার আকারে এটি ১৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে।
ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে দেশের উপকূলীয় অঞ্চলে পাঁচ থেকে সাত ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাস হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। আজ শনিবার সকালে সবশেষ আবহাওয়া অধিদপ্তরের ২৩ নম্বর বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।
আবহাওয়া অধিদপ্তর ‘বুলবুল’কে ‘অতি প্রবল’ ঘূর্ণিঝড় হিসেবে আখ্যা দিয়েছে। অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের নিকটে সাগর খুবই বিক্ষুব্ধ অবস্থায় রয়েছে।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘বুলবুল আরো ঘণীভূত হয়ে উত্তর, উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হতে পারে। এটি আজ শনিবার সন্ধ্যা নাগাদ সুন্দরবনের কাছ দিয়ে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের খুলনা উপকূল অতিক্রম করতে পারে। আজ দুপুর দুইটার মধ্যে উপকূলীয় অঞ্চলের সবাইকে আশ্রয়কেন্দ্রে যাওয়ার জন্য বলা হয়েছে।’
আবহাওয়াবিদ এ কে এম রুহুল কুদ্দুছের পক্ষ থেকে শনিবার সকাল সাড়ে দশটায় প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আজ শনিবার সকাল নয়টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৪৯০ কিলোমিটার পশ্চিম দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার থেকে ৪৮০ কিলোমিটার পশ্চিম দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৩১০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৩৩৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল।
এদিকে শুক্রবার বিকেলে সচিবালয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান জানান, উপকূলীয় আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, ‘১৩টি জেলার সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করে তাদের নিজ নিজ কর্মস্থলে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’
আবহাওয়া অধিদপ্তরের সর্বশেষ তথ্য মতে, বঙ্গোপসাগরের অভ্যন্তরে সৃষ্ট অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ ঘণ্টায় ১৩০ কিলোমিটার বেগে উপকূলের দিকে এগিয়ে আসছে। বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ১৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়ছে। আজ শনিবার সন্ধ্যার দিকে বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় আঘাত হানতে পারে।
উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।
সূত্র : এনটিভি