মাদরাসায় যাওয়ার প্রতিবন্ধকতা কাটলো সুমনের

আপডেট: 04:26:57 01/10/2020



img

স্টাফ রিপোর্টার, বেনাপোল (যশোর) : দেশসেরা উদ্ভাবক মিজানুর রহমানের উদ্যোগে স্বপ্ন পূরণ হলো শার্শা হাফিজিয়া মাদরাসার ছাত্র মো. আবু ত্বলহা সুমনের।
তার বাড়ি থেকে হতে বের হতেই পড়ে বেতনা নদী। নদী পারাপারের জন্য এই নৌকাটি উপহারস্বরূপ দেওয়া হয়েছে তাকে। ছেলের লেখাপড়ার সুযোগ-সুবিধার জন্য এই নৌকাটি তার খুব উপকার হবে বলে জানান ত্বলহার ভূমিহীন বাবা উপজেলার বেড়ি নারায়ণপুর গ্রামের হাসানুজ্জামান।
বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় বেড়ি নারায়ণপুরে বেতনা নদীর তীরে তার হাতে নৌকা তুলে দেন আর্থিক সহায়তাকারী গদখালী ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক এবং নবীননগর মিতালী সংঘের সাধারণ সম্পাদক ব্যবসায়ী আলমগীর হোসেন।
মাদরাসাছাত্র আবু ত্বলহা সুমন বলে, ‘বেতনা নদী পার হতে আমার অনেক কষ্ট হতো। কলাগাছ কেটে ভেলা তৈরি করে যাতায়াত করা লাগতো। অনেক সময় নদীতে পড়ে গিয়ে বই খাতা ভিজে যেত। এজন্য ঠিকমতো মাদরাসায় যেতে পারতাম না। দেশসেরা উদ্ভাবক মিজানুর রহমানের সহযোগিতায় আমার লেখাপড়ার সুবিধার্থে ব্যবসায়ী আলমগীর ভাই আমাকে নৌকা উপহার দিয়েছেন। তার কাছে আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আর যাদের সহযোগিতায় আমি নৌকা পেয়েছি তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই।’
আবু ত্বলহার বাবা হাসানুজ্জামান বলেন, ‘আমি খুবই গরিব, ভূমিহীন মানুষ। সরকারি খাস জমিতে থাকি। আমার ছেলে ত্বলহা মাদরাসায় লেখাপড়া করে। পড়তে তার খুবই আগ্রহ। বেতনা নদী ভেলায় করে পার হয়ে প্রতিদিন মাদরাসায় যায়। পানিতে পড়ে গেলেও কখনো মাদরাসায় যাওয়া বন্ধ করতে চায় না। উদ্ভাবক মিজান ভাই ও তার অন্যান্য সহযোগী সবার প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।’
নৌকা হস্তান্তর অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন নাভারন ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম- আহ্বায়ক উজ্জ্বল হোসেন, সাংবাদিক সোহেল রানা, আবু হাসান আকিব, নূর হোসেন আরিফসহ স্থানীয় বিশিষ্ট ব্যক্তিরা।
প্রধান অতিথি আলমগীর হোসেন আবু ত্বলহার লেখাপড়া করার জন্য সার্বিক সহযোগিতা করার আশ্বাসও দেন।