মুমিনুল-মেহেদির রেকর্ড জুটি

আপডেট: 10:01:30 11/01/2020



img

সুবর্ণভূমি ডেস্ক : মন্থর শুরুর পর ঝড় তুললেন মুমিনুল হক। জীবন পাওয়ার পর বিস্ফোরক ইনিংস খেললেন মেহেদি হাসান। চতুর্থ উইকেটে গড়লেন বিপিএলে সর্বোচ্চ রানের জুটি। তাদের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে খুলনা টাইগার্সের বিপক্ষে রানের পাহাড় গড়েছে ঢাকা প্লাটুন।
মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শনিবারের দ্বিতীয় ম্যাচে চার উইকেটে ২০৫ রান করেছে ঢাকা।
আগের সেরা ৬৪ ছাড়িয়ে ৯১ রান করলেন মুমিনুল। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানের ৫৯ বলের ইনিংসটি গড়া চার ছক্কা ও সাত চারে। তার সঙ্গে চতুর্থ উইকেটে ৮০ বলে ১৫৩ রানের জুটি উপহার দেন মেহেদি। তরুণ এই অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার আগের ব্যক্তিগত সেরা ৫৯ ছাড়িয়ে অপরাজিত থাকেন ৬৮ রানে। তার ৩৬ বলের টর্নেডো ইনিংসে পাঁচটি ছক্কার পাশে তিনটি চার।
বিপিএলে চতুর্থ উইকেটে আগের রেকর্ড ছিল চিটাগং কিংসের লরি ইভান্স ও রায়ান টেন ডেসকাটের। গত আসরে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে তারা গড়েছিলেন অবিচ্ছিন্ন ১৪৮ রানের জুটি। 
টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি ঢাকার। রবি ফ্রাইলিঙ্ককে বেরিয়ে এসে ওড়ানোর চেষ্টায় মিডঅফে ধরা পড়েন তামিম ইকবাল। তিনে নেমে ব্যর্থ এনামুল হক; ফ্রাইলিঙ্কের শর্ট বলে ধরা পড়েন মুশফিকুর রহিমের গ্লাভসে।
আরিফুল হকের জায়গায় দলে ফেরা জাকের আলী বিদায় নেন ঝড়ের আভাস দিয়েই। ৩৫ রানে তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া ঢাকা এগিয়ে যায় মুমিনুল ও মেহেদির ব্যাটে।
শুরুতে সাবধানী ব্যাটিং করছিলেন মুমিনুল। আর ক্রিজে গিয়েই শট খেলতে থাকেন মেহেদি। ব্যক্তিগত ১২ রানে একটি সুযোগও দেন তিনি। মেহেদী হাসান মিরাজের বলে শর্ট থার্ড ম্যানে বেশ উঁচুতে উঠে যাওয়া ক্যাচ মুঠোয় জমাতে পারেননি শহিদুল ইসলাম।
প্রথম দশ ওভারে ৭৩ রান তোলা ঢাকা মুমিনুল ও মেহেদির তাণ্ডবে শেষ দশ ওভারে যোগ করে ১৩২ রান।
শফিউল ইসলামকে দুই চারের পর ছক্কায় ৪১ বলে ফিফটি স্পর্শ করেন মুমিনুল। পরে রান তোলেন আরো দ্রুত। ৩১ বলে আসরে তৃতীয় ফিফটি তুলে নেন মেহেদি। দুই ব্যাটসম্যানই বড় শট খেলায় শেষের দিকে রান আসে বানের স্রোতের মতো।
৩৪ বলে পঞ্চাশে যায় জুটির রান, একশ হয় ৫৭ বলে। দেড়শ স্পর্শ করে কেবল ৭৭ বলে। এক সময়ে দেড়শই মনে হচ্ছিল দূরের পথ। সেখান থেকে মুমিনুল-মেহেদি দলকে নিয়ে গেলেন দুইশ রানে।
সূত্র : বিডিনিউজ