মেহেদী মাসুদসহ যে ২৯ জনের করোনা শনাক্ত হলো

আপডেট: 01:13:40 12/07/2020



img

স্টাফ রিপোর্টার : শনিবার যশোরের যে ৩১টি নমুনাকে করোনা পজেটিভ হিসেবে চিহ্নিত করে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনোম সেন্টার, তার মধ্যে একটি ছিল ফলোআপ। এছাড়া অন্য একটি নমুনায় নাম ভুল ছিল। ফলে এদিন নতুন করে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ২৯।
শনাক্তদের মধ্যে রয়েছেন চৌগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান মেহেদী মাসুদ চৌধুরী, যশোর সিভিল সার্জন অফিসের ডাক্তার এসএম মোর্তুজা, এনএসআইয়ের ফিল্ড অফিসার সেলিম রহমান।
শনাক্ত ২৯ জন হলেন-
পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির চাকুরে উপশহর এ ব্লকের নাসরিন সুলতানা (৫৪), কেশবপুরের আলতাপোল এলাকার এনজিও কর্মী রেজাউল করিম (৫১) যশোর নূতন উপশহর এফ ব্লকের ২৫ বছর বয়সী এক ছাত্র, ঘোপ এলাকার বাসিন্দা ডাক্তার বজলুর রশিদের এক সহকারী (৩৮), বারান্দি মোল্লাপাড়ার ২৪ বছর বয়সী এক ছাত্র, পুলেরহাটের ৩০ বছর বয়সী এক ব্যবসায়ী, জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) মাগুরার ফিল্ড অফিসার সেলিম রহমান (৪০), যার বাড়ি যশোর শহরের জেল রোডে, শহরের নেতাজী সুভাষচন্দ্র সড়ক (গাড়িখানা) এলাকার এক গৃহিণী (৫০), অভয়নগরের গুয়াখোলার এনামুল, যিনি রাজধানীতে পেট্রোবাংলায় চাকরি করেন, শার্শার গোগা গ্রামের ২৬ বছর বয়সী এক ছাত্র, অভয়নগর উপজেলার মধ্যকুটিবাড়ি এলাকার স্বাস্থ্য সহকারী আশিষকুমার (৩৯), কেশবপুরের আলতাপোল এলাকার বাসিন্দা স্বাস্থ্য সহকারী আব্দুল জব্বার (৬১), অভয়নগর উপজেলা পরিষদের অফিস সহায়ক ফজিলা খাতুন (৪৯), যশোর শহরের ঝুমঝুমপুর এলাকার মেডিকেল প্রমোশন অফিসার ইখতিয়ার উদ্দিন (৩৪), অভয়নগরের রাজঘাট এলাকার ৬০ বছর বয়সী এক ব্যবসায়ী, একই উপজেলার যুগ্নিপাশার এক নিরাপত্তা প্রহরী (৪৫), একতারপুর এলাকার এক ব্যবসায়ী (৫৭), গুয়াখোলা এলাকার ৫৪ বছরের এক ব্যবসায়ী, অভয়নগরের একটি টেক্সটাইল মিলের ৪৫ বছর বয়সী এক চাকরিজীবী।
আক্রান্ত হিসেবে শনাক্তের তালিকায় আছেন যশোর সিভিল সার্জন অফিসের ডাক্তার এস এম মোর্তুজা (৩৭), যিনি শহরের পূর্ববারান্দিপাড়ার বাসিন্দা, সদর উপজেলার জোসনা (৩৯), অভয়নগরের তাসনিম নেহা (৩২) নামে দুই গৃহিণী, অভয়নগরের শহিদুল ইসলাম (২০) নামে এক ছাত্র, চৌগাছা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ফুলসারা ইউপি চেয়ারম্যান মেহেদী মাসুদ চৌধুরী (৫২), যশোর সদরের শাহরিয়ার (৩৮) নামে এক ব্যক্তি, রাজধানীর আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজের শিক্ষক ফাতেমা খাতুন (২৮), যার বাড়ি যশোর শহরের বারান্দিপাড়ায়, কুষ্টিয়া হরিনারায়ণপুর এলাকার বাসিন্দা ও এলজিইডির একজন গাড়িচালক (৩৫) এবং যশোর শহরের শাহজালাল (৪৬) ও শাহীন (২৪) নামে দুই ব্যক্তি।

আরও পড়ুন