যবিপ্রবির দুই দিনের পরীক্ষায় ১১৩ নমুনা পজেটিভ

আপডেট: 10:55:23 11/04/2021



img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) জেনোম সেন্টারের পরীক্ষায় দুই দিনে মোট ১১৩টি নমুনা করোনা পজেটিভ হিসেবে শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে আজ রোববার ৫৭টি এবং গতকাল শনিবার ৫৬টি নমুনা পজেটিভ বলে শনাক্ত হয়।
পজেটিভ হওয়া নমুনাগুলোর প্রায় সবই যশোর জেলার।
বিশ্ববিদ্যালয়ের অণুজীববিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ও পরীক্ষণ দলের সদস্য ইকবাল কবীর জাহিদ জানান, রোববার তাদের ল্যাবে মোট ২৪৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়; যেগুলো যশোর ও মাগুরার সন্দেহভাজন করোনা রোগীদের শরীর থেকে সংগ্রহ করা। এর মধ্যে ৫৭টি নমুনা পজেটিভ ছিল।
এদিন যশোরের নমুনা পরীক্ষা করা হয় ২২৩টি। এর মধ্যে ৫৪ জনের ফল পজেটিভ হয়। এছাড়া মাগুরার ২৫টি নমুনার মধ্যে তিনটি পজেটিভ ফল দেয়।
এর আগের দিন শনিবার যবিপ্রবি ল্যাবে মোট ২৩৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ৫৬টি পজেটিভ রেজাল্ট দেয়।
এদিন পরীক্ষিত নমুনাগুলোর মধ্যে যশোর জেলার ছিল ২১৫টি। এর মধ্যে ৫৫টি পজেটিভ রেজাল্ট দেয়। আর মাগুরার ১৮টি নমুনার মধ্যে একটি পজেটিভ ছিল।
গত মাসের শেষ দিক থেকে সারা দেশের মতো যশোর অঞ্চলেও করোনা রোগী দ্রুত বাড়তে থাকে। এই অঞ্চলের পরিস্থিতিকে ‘ভয়াবহের কাছাকাছি’ বলে মত দিয়েছেন দেশের বিশিষ্ট অণুজীববিজ্ঞানী ও যবিপ্রবির উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. আনোয়ার হোসেন
তিনি সুবর্ণভূমিকে বলেন, এখন দক্ষিণ আফ্রিকার ধরন দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। এই ধরনের করোনা খুবই সংক্রামক। ফলে বাঁচতে হলে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বেরুনো যাবে না। পরস্পরের সঙ্গে শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। ঘরবাড়ি, অফিস-আদালতের জানালা যতটা সম্ভব খুলে রেখে বাতাসের অবাধ চলাচল নিশ্চিত করতে হবে। পর্যায়ক্রমে সবাইকে করোনার টিকা নিতে হবে। কাঁচাবাজার উন্মুক্ত স্থানে স্থানান্তরিত করতে হবে। সাবান দিয়ে ঘন ঘন হাত পরিস্কার করতে হবে। মুখ, চোখে হাত দেওয়ার অভ্যাস ত্যাগ করতে হবে।

আরও পড়ুন