যশোর বিএনপির সাবেক সভাপতি শামসুল হুদার মৃত্যু

আপডেট: 11:16:48 13/01/2021



img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোর জেলা বিএনপির সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শামসুল হুদা মারা গেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। তার বয়স হয়েছিল ৭৩ বছর।
বুধবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে ঢাকার আগারগাঁওয়ে নিউরো সায়েন্স হসপিটালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। জেলা বিএনপির সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
অ্যাডভোকেট সাবু জানান, শামসুল হুদা জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ছিলেন। ২০১১ সালে জেলা বিএনপির সভাপতি চৌধুরী শহিদুল ইসলাম নয়ন মৃত্যুবরণ করলে তিনি ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেন। ২০২০ সালের নভেম্বর মাস পর্যন্ত তিনি ওই দায়িত্ব পালন করেছেন।
সাবু আরো জানান, শামসুল হুদা একজন মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। মৃত্যুকালে বর্ষীয়ান এ নেতা স্ত্রী, দুই ছেলে ও দুই মেয়েসহ অনেক শুভাকাঙ্ক্ষী রেখে গেছেন। মস্তিস্কে রক্তক্ষরণজনিত অসুস্থ হওয়ায় গত সোমবার তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।
বিএনপি নেতা সাবু জানান, শামসুল হুদা ছাত্ররাজনীতি থেকে উঠে এসেছিলেন। তিনি ছাত্রলীগের যশোর জেলার প্রতিষ্ঠাকালীন নেতা ছিলেন। তার ছাত্ররাজনীতির সময়কার বন্ধু যশোরের প্রতিথযশা আওয়ামী লীগ নেতা খান টিপু সুলতান ও অ্যাডভোকেট শরীফ আব্দুর রাকিব।
আজ রাতেই শামসুল হুদার মরদেহ যশোরে আনা হবে। দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে আলোচনা করে নামাজে জানাজা ও দাফনের সময় এবং কর্মসূচি নির্ধারণ করা হবে; যা পরবর্তীতে জানানো হবে।
অ্যাডভোকেট সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু মন্তব্য করেন, শামসুল হুদার মৃত্যুর ফলে যশোর বিএনপি একজন অভিভাবক হারালো। এ ক্ষতি অপূরণীয়। 

আরও পড়ুন