যশোরের ‘ইমিউনিটি পিঠা’ বাড়াবে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

আপডেট: 04:14:46 02/07/2020



img
img

জহর দফাদার : মানুষের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা ব্যাপার। বিশেষ করে করোনার এই মহামারিকালে বিশ্ববাসী হাড়ে হাড়ে তা টের পাচ্ছেন। বহু মানুষ এখন হণ্যে হয়ে খুঁজছেন, কোন উপাদানযুক্ত খাবার খেলে শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেড়ে, করোনাভাইরাসকে পরাজিত করা যাবে।
এমন পরিস্থিতিতে যশোরের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন তৈরি করলো ‘ইমিউনিটি পিঠা’; যাতে ডুমুর, কালোজিরা, আদা, অলিভ অয়েল, মুরগির মাংসসহ ১২টি ওষধি ও উপকারী উপাদান রয়েছে। ইতিমধ্যে সাড়া ফেলেছে অভিনব অথচ দরকারি খাদ্যবস্তুটি।
এই পিঠার উদ্ভাবক ‘আইডিয়া সমাজকল্যাণ সংস্থা’র কর্মীরা। পুষ্টিবিদদের পরামর্শে তৈরি এই পিঠা ইতিমধ্যে বাজারজাতও হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সংগঠনটির প্রধান উপদেষ্টা যশোর সরকারি এমএম কলেজের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হামিদুল হক শাহীন।
তিনি বলেন, ‘গোটা বিশ্বে করোনাভাইরাস মহামারি রূপ নিয়েছে। বাস্তবতা হচ্ছে, এর কোনো ওষুধ বা ভ্যাকসিন এখনো নেই। কাজেই ইমিউনিটি বা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোই একমাত্র ভরসা। এ কারণেই আইডিয়ার কর্মীরা পুষ্টি বিশেষজ্ঞদের পরামর্শে এই পিঠা তৈরি করেছে।’
‘ইমিউনিটি পিঠার উপাদানসমূহের মধ্যে রয়েছে−ডুমুর, কালোজিরা, আদা, রসুন, এলাচ, মেথি, লবঙ্গ, গোলমরিচ, দারুচিনি, আমলকী, তুলসিপাতা, সজনে পাতা ও এক্সট্রা ভার্জিন অলিভ অয়েল। যার সবই আমাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির পাশাপাশি বহুবিধ উপকার সাধন করে,’ বলেন অধ্যাপক শাহীন।
যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) পুষ্টি ও খাদ্যপ্রযুক্তি বিভাগের প্রভাষক শুভাশীষ দাস শুভ বলেন, ‘প্রাচীনকাল থেকেই প্রমাণিত যে, নিয়মিত শরীর চর্চা ও সাধারণ সুষম খাবারের পাশাপাশি কিছু মশলা আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। যেমন কালোজিরা, আদা, রসুন, হলুদ, লবঙ্গ, গোলমরিচ। এছাড়া ডুমুর, আমলকী, তুলসিপাতা ও সজনেপাতা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আইডিয়া পিঠা পার্ক উদ্ভাবিত ইমিউনিটি পিঠা এই জায়গাতেই কাজ করেছে।’
ল্যাব এইড যশোর শাখায় কর্মরত নিউট্রিশন ও ডায়েট কনসালটেন্ট মো. শাহারিয়া করিম জসি বলেন, ‘কোভিড-১৯ এ সবচেয়ে বেশি সমস্যা শ্বাসকষ্টে। কালোজিরা শ্বাসপ্রশ্বাসের সমস্যা কমায়। ক্ষতিকর জীবাণু নিধন থেকে শুরু করে শরীরের কোষ ও কলার বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে দৈনিক পাঁচ গ্রাম মেথি, ১-১.৫ গ্রাম দারুচিনি, ২-৫ গ্রাম কাঁচা রসুন, ২-৩ গ্রাম আদা খাওয়া উচিত। এসব মশলায় রয়েছে বিভিন্ন প্রকার এন্টিঅক্সিডেন্ট যেমন; কালোজিরায় আছে Phenolic amides, Flavonoids, আদায় আছে  Gingerol,  লবঙ্গে রয়েছে  Eugenol, যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। পাশাপাশি এসব উপাদান সামগ্রিকভাবে হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, উচ্চরক্তচাপ তথা  Lifestyle Disease নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে শারীরিক সক্ষমতা বৃদ্ধি করে। আইডিয়া পিঠা পার্ক কর্তৃক উদ্ভাবিত, আয়ুর্বেদিক উপাদান ও বিভিন্ন মশলার সমন্বয়ে স্বাস্থ্যসম্মতভাবে তৈরি এই পিঠা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধির মাধ্যমে মানুষকে বিভিন্ন প্রকার ব্যাধি থেকে রক্ষা পেতে সহায়ক হবে।’
আইডিয়া পিঠা পার্কের সমন্বয়ক সোমা খান বলেন, ‘গত সপ্তাহ থেকে আমরা এই পিঠা বাজারজাত করছি। মূলত আমাদের ক্যাম্পেইন শুরু হয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। এতে করে শুধু যশোরই নয়, দেশের বিভিন্ন জেলা থেকেও আমরা সাড়া পাচ্ছি প্রতিনিয়ত। চাহিদা ও সরবরাহ সন্তোষজনক। আমরা বিশ্বাস করি, আইডিয়া ইমিউনিটি পিঠা খাদ্য হিসেবে গ্রহণে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা অনেক বৃদ্ধি পাবে। যা করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) মোকাবিলায় সহায়ক হবে।’
আইডিয়া পিঠা পার্কের পেজে (https://www.facebook.com/ideapithapark/) এ সম্পর্কে আরো জানা যাবে বলে তিনি জানান।
এই বিষয়ে যশোরের সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন বলেন, ‘শুধু পিঠা কেন, যেকোনো খাদ্যদ্রব্যে যদি এসব উপাদান থাকে, তবে তা উপকারী; যদি তা প্রাকৃতিক উৎস থেকে আসে। এসব উপাদান রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পারে। যাদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি, তারা করোনাও প্রতিরোধে বেশি সক্ষম হবেন।’