যশোরে ট্রেন-ট্রাক সংঘাত, সাত ঘণ্টা পর যোগাযোগ সচল

আপডেট: 01:38:01 22/11/2020



img
img

স্টাফ রিপোর্টার : যশোরে ট্রেন-ট্রাকের সংঘর্ষে খুলনার সঙ্গে দেশের বাকি অংশের রেলযোগাযোগ প্রায় সাত ঘন্টা পর চালু হয়েছে। শনিবার দিনগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে খুলনা থেকে আসা রিলিফ ট্রেন উদ্ধার কাজ শুরু করে। রাত আড়াইটার দিকে উদ্ধার কাজ শেষে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।
শনিবার সন্ধ্যায় ঘটা এই দুর্ঘটনায় ট্রাকটির চালক নিহত এবং হেলপার আহত হন।
নিহত ট্রাকচালকের নাম আকবর আলী (৬০)। তার বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ। আর আহত হেলপারের নাম অঙ্গন (৩৩)। তার বাড়ি রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ি উপজেলার গোপালপুর গ্রামে। শনিবার সন্ধ্যারাতে যশোর শহরতলীর মুড়লি রেলক্রসিংয়ে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা হতাহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠান।
যশোর সদরের চাঁচড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইনসপেক্টর রকিবুজ্জামান এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, যশোরের নওয়াপাড়া থেকে কয়লাবোঝাই একটি ট্রাক চাঁপাইনবাবগঞ্জে যাওয়ার সময় চলন্ত ট্রেনের সঙ্গে ধাক্কা দেয়। এতে ট্রাকচালক দুর্ঘটনাস্থলে মারা যান। হেলপারকে আহত অবস্থায় যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
যশোর রেল জংশনের মাস্টার আয়নাল হোসেন বলেন, রাত সাতটা দশ মিনিটে রাজশাহী থেকে আসা কপোতাক্ষ এক্সপ্রেস খুলনার দিকে যাওয়ার সময় দুর্ঘটনাটি ঘটে।
তিনি জানান, ক্রসিংয়ে গেট বন্ধ থাকলেও ট্রেকটি সেটি ভেঙে ট্রেনের সঙ্গে ধাক্কা দেয়। বর্তমানে ট্রাকটি লাইনের ওপরে রয়েছে। সেকারণে আপাতত ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে।
‘ইতোমধ্যে খুলনা থেকে একটি রিলিফ ট্রেন রওয়ানা হয়েছে। আধাঘণ্টার মধ্যে ট্রাকটি অপসারণ করা সম্ভব হবে,’ বলেন আয়নাল হোসেন। রাত সাড়ে ১২টার দিকে খুলনা থেকে আসা রিলিফ ট্রেন উদ্ধার কাজ শুরু করে। দুর্ঘটনাস্থলে থাকা কর্মকর্তারা বলছেন, উদ্ধার কাজ শেষ হতে বেশ খানিকটা সময় লাগবে।

উদ্ধারকারী ট্রেনের পরিচালক অসিত কুমার বিশ্বাস বলেন, তারা রাত ১২টার দিকে ঘটনাস্থলে আসেন। এরপর রাত দেড়টার দিকে রেললাইন থেকে দুর্ঘটনা কবলিত ট্রাকটি সরিয়ে ফেলা হয়। অন্যান্য কাজ শেষে রাত আড়াইটার দিকে ক্ষতিগ্রস্ত ট্রেনটি যশোর রেলস্টেশনে ফিরিয়ে নেয়া হয়। এজন্য দর্শনা থেকে একটি ইঞ্জিন আনা হয়।

তিনি আরো বলেন, এরপর আটকে পড়া ঢাকাগামী ট্রেন সুন্দরবনসহ অন্যান্য ট্রেন তাদের গন্তব্যের উদ্দেশে যাত্রা শুরু করে।

আরও পড়ুন