যান ধর্মঘটে বিপাকে সবজিচাষি পাইকাররা

আপডেট: 07:31:41 21/11/2019



img

তারেক মাহমুদ, কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) : ঝিনাইদহে চতুর্থ দিনের মতো চলছে পরিবহন শ্রমিক ধর্মঘট। বৃহস্পতিবারও জেলার অভ্যন্তরীণ ও দূরপাল্লার সব রুটে বাস ও ট্রাক চলাচল বন্ধ ছিল। ফলে ঝিনাইদহে সড়ক মহাসড়কগুলোতে বিরাজ করছে অচলাবস্থা। এতে যাত্রীদের পাশাপাশি বিপাকে পড়েছেন সবজিচাষি ও পাইকাররা।
দুপুরে ঝিনাইদহের কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা গেছে, ধর্মঘটের কারণে পাইকারি ব্যবসায়ীরা সবজি ঢাকা পাঠাতে পারছেন না। ফলে সব সবজি নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। কেউ কেউ আবার গরু-ছাগল দিয়ে শাক-সবজি খাইয়ে দিচ্ছেন। একই অবস্থা জেলার সব উপজেলায়।
ঝিনাইদহ শহরের কাঁচাবাজারের ব্যবসায়ী মিল্টন হোসেন বলেন, ‘কয়েকদিন আগে ১৬০ টাকা দরে প্রায় ৩০০ কেজি ধনেপাতা কিনেছিলাম। পণ্য পরিবহন ধর্মঘটের কারণে কোনো সবজি ঢাকা পাঠাতে পারছি না। যার ফলে সব নষ্ট হয়ে গেছে। অবশিষ্ট যা আছে ফেলে দিয়েছি; এখন গরু-ছাগলে খাচ্ছে।’
ধর্মঘটের কারণে লোকসানের মুখে পড়ছেন তার মতো অনেক কাঁচামাল ব্যবসায়ী ও চাষি।
বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী বলেন, মালামাল গন্তব্যে পাঠাতে না পেরে শীতকালীন সবজি ফুলকপি, বাঁধাকপি, মুলা সব পচে যাচ্ছে। ঢাকায় পাঠাতে না পেরে অনেক পাইকারকে পানির দামে সবজি বিক্রি করে দিতে হচ্ছে। এতে কৃষক-ব্যবসায়ী সবাই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।
সমস্যা সমাধানে সরকারের উচিত সবাই বসে একটা সমাধান করা- অভিমত কাঁচামাল ব্যবসায়ী ও চাষিদের।
এদিকে, শ্রমিকরা বলছেন, পাঁচ লাখ টাকা থাকলে তারা ড্রাইভারি করতে আসতেন না। নতুন আইন মেনে তাদের পক্ষে কোনোভাবেই গাড়ি চালানো সম্ভব না। পথে চলতে গেলে দুর্ঘটনা ঘটবেই। ৫ লক্ষ টাকা জরিমানা, জামিন-অযোগ্য ধারায় মামলার ঝুঁকি নিয়ে তারা গাড়ি চালাতে চান না।

আরও পড়ুন