শ্যামনগরে সর্বস্ব লুটের অভিযোগ

আপডেট: 07:04:56 08/04/2021



img

শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি : শ্যামনগর উপজেলা সদরের কেন্দ্রীয় বাসটারমিনাল থেকে আলমগীর হোসেন (৩০) নামে এক যুবকের সর্বস্ব লুটে নেওয়ার অভিযোগ করা হচ্ছে। তবে প্রধান অভিযুক্ত এই অভিযোগ অস্বীকার করছেন।
এ ঘটনায় ভুক্তভোগী আলমগীর হোসেন দুইজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত তিন/চারজনের বিরুদ্ধে শ্যামনগর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।
শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আলমগীর জানান, গত ছয় মাস ধরে তিনি টাঙ্গাইলে একটি ইটভাটায় শ্রমিক সরদার হিসেবে কাজ করছেন। মওসুম শেষ হওয়ায় গত বুধবার বাড়ির উদ্দেশে রওনা হন তিনি। বৃহস্পতিবার গভীররাতে তিনি শ্যামনগর বাসটারমিনালে পৌঁছান। সেখানে তিনি অন্য কোনো যানবাহনের অপেক্ষা করছিলেন। ওই সময় রায়হান ও আইয়ুব আনছারসহ ৩/৪ জন অপরিচিত ব্যক্তি এসে নির্দিষ্ট ভাড়ায় বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে তাকে ব্যাটারিচালিত ইজিবাইকে ওঠায়।
তিনি অভিযোগ করেন পাশের চণ্ডিপুর এলাকায় পৌঁছে ইজিবাইক থেকে নামিয়ে তাকে সবাই মিলে মারধর করে কাছে থাকা এত দিনের জমানো ৬২ হাজার টাকা আর মোবাইল ফোনসহ মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনিয়ে নেয়। একপর্যায়ে তার চিৎকারে স্থানীয়রা বাড়ি থেকে রাস্তায় বেরিয়ে এলে দুবৃর্ত্তরা পালিয়ে যায়।
এঘটনায় রায়হান ও আইয়ুব আনছারসহ অজ্ঞাত তিন-চারজনের বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন বলে তিনি জানান।
তবে প্রধান অভিযুক্ত রায়হান হোসেন বলেন, ‘ছিনতাইয়ের কোনো ঘটনা ঘটেনি। ইতিপুর্বে সে (আলমগীর) আমাকে মারপিট করেছিল। তাই তাকে শাসন করা হয়েছে।’
শ্যামনগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. নাজমুল হুদা, জানান এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন