সংক্রমণ ঊর্ধ্বমুখী : যশোর- নওয়াপাড়া পৌরসভায় কঠোর বিধিনিষেধ

আপডেট: 06:38:59 08/06/2021



img

স্টাফ রিপোর্টার: করোনা সংক্রমণের হার প্রতিদিন বৃদ্ধি পাওয়ায় যশোর পৌরসভা ও অভয়নগরের নওয়াপড়া পৌরসভার সব ওয়ার্ডে চলমান বিধিনিষেধ সম্প্রসারণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।  
আজ মঙ্গলবার বেলা তিনটায় যশোর জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।  
যশোরের জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মো. তমিজুল ইসলাম খান।  
সভায় যশোরের পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার, সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহীন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান পিকুল, যশোরের পৌরমেয়র হায়দার গণী খান পলাশ, প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুনসহ জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
গত ২৪ ঘণ্টায় এ জেলায় নতুন করে ১২৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মঙ্গলবার (৮ জুন) শনাক্তের হার ৪২ শতাংশ। সোমবার ছিল ২৯ শতাংশ। এদিকে, গত ২৪ ঘণ্টায় এ জেলায় ২৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১২৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।
যশোর জেলায় মে মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে করোনা শনাক্তের হার বাড়তে শুরু করে। জুন মাসের শুরুতেও ঊর্ধ্বমুখীভাব দেখা যাচ্ছে। গত ৩ জুন শনাক্তের হার ছিল ২৫ শতাংশ। ৪ জুন কমে দাঁড়ায় ২৩ শতাংশ। ৫ জুন ছিল ২০ শতাংশ। ৬ জুন সেটা বেড়ে দাঁড়ায় ২৩ শতাংশে। ৭জুন তা আরও বেড়ে দাঁড়ায় ২৯ শতাংশে। আজ সেটা বেড়ে দাঁড়িয়ে ৪২ শতাংশে।
এ পর্যন্ত জেলায় সাত হাজার ৯৫৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে মারা গেছেন ৮৩ জন। এছাড়া যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৫৭জন।
যশোরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কাজী মো. সায়েমুজ্জামান বলেন, সভায় যশোরের সার্বিক করোনা পরিস্থিতি নিয়ে পর্যালোচনা করা হয়েছে।  প্রতিদিন যশোর পৌর এলাকা ও অভয়নগরের নওয়াপাড়া পৌর এলাকায় সংক্রমণের হার বেড়ে যাচ্ছে। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে যশোর পৌর এলাকার দুইটি ওয়ার্ডের চলমান বিধি নিষেধ সব ওয়ার্ডে সম্প্রসারণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এছাড়াও নওয়াপাড়ার দুইটি ওয়ার্ডের চলমান বিধিনিষেধও সকল ওয়ার্ডে সম্প্রসারণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। শিগগিরই এ বিষয়ে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে বলে।
তিনি বলেন, আগামীকাল বুধবার রাত থেকেই করোনা কমিটির সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হবে।    
তিনি জানান, সভায় সবাইকে মাস্ক ব্যবহারের উপর গুরুত্ব দেয়া হয়। ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ও বাজারে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনের উপর জোর দেয়া হয়। এছাড়াও গণসমাবেশ ও অনুষ্ঠান কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ, মোটরসাইকেলে একজন, রিকশায় একজন এবং অটোরিকশায় দুইজনের বেশি চলাচল করতে পারবে না বলেও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
তবে, গণপরিবহন এবং দোকানপাট শপিংমলের বিষয়ে সরকারি সিদ্ধান্ত বলবৎ থাকবে বলে তিনি জানান।
প্রসঙ্গত, গত ৫ জুন রাতে করোনা কমিটির সভায় যশোর পৌরসভার দুটি নওয়াপড়া পৌরসভার দুটি ওয়ার্ডে সরকারি বিধিনিষেধ কঠোরভাবে বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত নেয় জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটি।

আরও পড়ুন