সংঘাতে আওয়ামী নেতা নিহত, পুলিশসহ আহত ২৫

আপডেট: 06:49:41 06/07/2020



img

শ্যামলী খন্দকার, কুষ্টিয়া : কুষ্টিয়ার কুমারখালীর সান্দিয়ারা গ্রামে দুই দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে বিল্লাল হোসেন (৫০) নামে একজন নিহত হয়েছেন।
নিহত ব্যক্তি পান্টি ইউনিয়নের আট নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি। তিনি সান্দিয়ারা গ্রামের মৃত মোফাজ্জেল হোসেনের ছেলে।
সংঘর্ষে ছয় পুলিশসহ উভয় পক্ষের অনন্ত ২৫ জন আহত হয়েছেন।
আজ সোমবার বেলা ১২টার দিকে সংঘর্ষের এই ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সান্দিয়ারা বাজারে আধিপত্য বিস্তার ও পূর্ব বিরোধ নিয়ে দুই দল গ্রামবাসী সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এসময় উভয়পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে প্রতিপক্ষের ওপর হামলা, ইট-পাটকেল নিক্ষেপ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ায় লিপ্ত হয়। খবর পেয়ে কুমারখালী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাঠিচার্জ ও রাবার বুলেট ছুড়ে উভয়পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করে। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী চলা সংঘর্ষে একজন নিহত এবং পুলিশসহ উভয়পক্ষের অন্তত ২৫ জন আহত হন।
কুমারখালী থানার ওসি মজিবুর রহমান জানান, গ্রাম্য বিরোধ নিয়ে দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে বিল্লাল নামে একজন নিহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে গিয়ে ছয় পুলিশসহ উভয়পক্ষের অন্তত ২৫ জন আহত হন। আহতদের স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রসহ বিভিন্ন চিকিৎসাকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করলেও পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলে দাবি করছেন ওসি।

আরও পড়ুন