সঙ্গীসহ চৌগাছা ছাত্রলীগ সভাপতিকে পিটিয়ে জখম

আপডেট: 11:05:36 11/07/2020



img

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি : পূর্ব শত্রুতার জের ধরে চৌগাছা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইব্রাহিম হোসেনকে (৩০) পিটিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষ। একই ঘটনায় মিঠুন বিশ্বাস নামের আর একজনকেও মাথায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মারাত্মক জখম করেছে দুর্বৃত্তরা।
ইব্রাহিম হোসেন চৌগাছা সদর ইউনিয়নের বেড়গোবিন্দপুর গ্রামের আব্দুল খালেক বিশ্বাসের ছেলে এবং মিঠুন বিশ্বাস একই গ্রামের মইন বিশ্বাসের ছেলে।
শুক্রবার রাতে উপজেলার বেড়গোবিন্দপুর বাঁওড় এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে। এই ব্যাপারে শনিবার চৌগাছা থানায় ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা করেছেন ইব্রাহিম হোসেনের ভাই জাহিদ হাসান মিলন।
হাসপাতালে ভর্তি আহত ইব্রাহিম বলেন, ‘শুক্রবার রাত নয়টার দিকে আমি চৌগাছা শহর থেকে নিজ গ্রাম বেড়গোবিন্দপুর যাচ্ছিলাম। বাঁওড় ব্রিজের কাছে পৌঁছালে ১০-১৫ ব্যক্তি ধারালো দা, লাঠিসোটা নিয়ে আমার ওপর হামলা করে এলোপাতাড়ি মারপিট শুরু করে। এসময় দা ও লোহার রডের আঘাতে আমার দুই পা মারাত্মক জখম হয়। একই সময়ে আমার সাথে থাকা মিঠুনকেও ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে হামলাকারীরা।’
ইব্রাহিম আরো বলেন, হামলাকারীদের মধ্যে বেড়গোবিন্দপুর গ্রামের পারভেজ, মহব্বত মল্লিক, রকি, বিপুল মল্লিক ও আলমকে তিনি চিনতে পেরেছেন।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. হাদিউর রহমান সিয়াম বলেন, ইব্রাহিমের বাম পায়ের শিরা কেটে গেছে এবং উভয় পায়ে মারাত্মক ইনজুরি হয়েছে। মিঠুনের মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। উভয়কেই উন্নত চিকিৎসার জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
এঘটনায় আহত ছাত্রলীগ নেতার ভাই জাহিদুর রহমান মিলন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শামীমসহ ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে শনিবার চৌগাছা থানায় হত্যাচেষ্টার মামলা করেছেন। মামলা নম্বর ৬।
মামলায় অভিযুক্ত সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শামীমের বাবা আওয়ামী লীগ নেতা আওরঙ্গজেব চুন্নু বলেন, ‘আমার ছেলে ঘটনার দিন শ্বশুরবাড়ি মহেশপুর উপজেলার কমলাপুর গ্রামে অবস্থান করছিল। রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে তাকে আসামি করা হয়েছে।’
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চৌগাছা থানার এসআই (উপপরিদর্শক) শাহিনুর রহমান শাহিন বলেন, ‘সঠিক বলা যাচ্ছে না কী কারণে এঘটনা ঘটেছে। তদন্ত চলছে। তবে একাধিক সূত্র থেকে জানতে পেরেছি, অভিযোগকারীদের সাথে ছাত্রলীগ নেতা ইব্রাহিমের পরিবারের অনেক পূর্বের শত্রুতা রয়েছে। শত্রুতার জেরে এঘটনা ঘটতে পারে।’
তিনি আরো বলেন, অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
এদিকে মামলার আসামিদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক বি এম শফিকুজ্জামান রাজুর নেতৃত্বে শনিবার দুপুরে শহরের বিভিন্ন সড়ক অবরোধ করে সকল প্রকার যাবাহন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। পরে চৌগাছা থানার ওসি রিফাত খান রাজিব এসে অতিদ্রুত আসামি গ্রেফতারের প্রতিশ্রুতি দিলে তারা অবরোধ তুলে নেন।
খুব শিগগিরই আসামিদের গ্রেফতার করে আইনে সোপর্দ করা সম্ভব হবে বলে আশাবাদী ওসি।

আরও পড়ুন